রক্তমাখা খাঁড়া নিয়ে গ্রাম প্রদক্ষিণ শীতলগ্রামের পুজোতে

0
190

নিজস্ব প্রতিনিধি, রামপুরহাট:

প্রাচীন রীতি মেনে দেবী পক্ষে আরম্ভ হল বীরভূমের নলহাটি থানার শীতলগ্রামের চট্টোপাধ্যায় পরিবারের পুজো। সোমবার ছাগ বলিদানের মধ্য দিয়ে পুজোর সূচনা করা হয়। পুজোর চারদিনও ছাগ বলি দেওয়া হবে। রক্তমাখা খাঁড়া নিয়ে গ্রাম প্রদক্ষিণ করা হয় চট্টোপাধ্যায় পরিবারের পক্ষ থেকে। প্রাচীন রীতি মেনে গ্রামের আরও ছয়টি বারোয়ারি পুজো শুরু হয় চট্টোপাধ্যায় পরিবারের পুজোর পর। পুজো চারদিন গ্রামবাসীদের জানান দিতে গ্রামে ডঙ্কা পিটিয়ে চট্টোপাধ্যায় পরিবারের পুজোর খবর দেওয়া হয়। দেবীপক্ষের শুরুতেই পুজো শুরু হয় সকালে ঘট ভরে, ছাগ বলি দিয়ে। প্রায় ৩১০ বছর আগে কোন এক চট্টোপাধ্যায় পরিবার জঙ্গলঘেরা শীতলগ্রামে আশ্রয় নিয়ে পঞ্চমুন্ডির আসন গড়ে শক্তির সাধনা শুরু করেন। স্বপ্নাদেশ পেয়ে দুর্গা পুজো শুরু হয়। চট্টোপাধ্যায় বাড়ির মেয়েরাও শরিক হিসাবে অংশগ্রহণ করেন। দশমীর রাতে মায়ের নিরঞ্জনের সময় কোন বৈদুতিন আলোর ব্যবহার করা হয় না । কথিত আছে যে সময় পুজো শুরু হয় তখন গ্রাম ছিল জঙ্গল ঘেরা। আলোর কোন চল ছিল না। এলাকার মানুষ কাঠ খড় জ্বালিয়ে যাতায়াত করত। প্রতিমা নিরঞ্জনও করা হত সেভাবেই। সেই রীতি বজায় রাখতে আজও বৈদুতিন আলোর ব্যবহার করা হয় না। রাতে প্রতিমা নিয়ে মশাল জ্বেলে গ্রাম প্রদক্ষিণ করা হয়। এই নিরঞ্জন দেখতে আশেপাশের গ্রামের মানুষ ভিড় জমান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here