পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলার ঘটনা আবারও উস্কে দিল বাঁকুড়ার নন্দী পরিবারের ভয়াবহ স্মৃতিকে

0
5433

গত ১৪ই ফেব্রুয়ারি কাশ্মীরের পুলওয়ামায় আত্মঘাতী জঙ্গি হামলার দগদগে ক্ষত এখনও দেশবাসীর মনে টাটকা। তবে এরই মাঝে দুদিন আগে পুলওয়ামায় ভয়াবহ জঙ্গি হানায় ৪৪ জন সিআরপিএফ জওয়ানের শহীদ হওয়ার ঘটনা ফের পুরনো স্মৃতিকে উস্কে দিয়েছে বাঁকুড়ার তালডাংরার পাঁচমুড়া গ্রামের নন্দী পরিবারের পুত্র ও পুত্রবধূ হারানোর শোককে। কারণ, আজ থেকে ঠিক ৬ বছর আগে ২০১৩ সালে কাশ্মীরে জঙ্গি হামলাতেই সেদিন শহীদ হয়েছিলেন বাঁকুড়ার তালডাংরার বাসিন্দা অদৈত নন্দী নামে এক জওয়ান। সেনাদের উপর জঙ্গি হামলা শহীদ অদৈত্য নন্দীর পরিবারকে শোকগ্রস্ত করে ফেলেছে। দুঃখের সংসারে মা ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেও, অদৈত্য নন্দী, বাবা সুশীল নন্দী (পেশায় কৃষক) ও ভাই অসীম নন্দীকে নিয়ে বাস করত। ২০০৪ সালে অদ্বৈত নন্দী ভারতীয় সেনাবাহিনীতে চাকরি পেলে সংসারে অনেকটা সুখ-স্বাচ্ছন্দ্য ফিরে আসে। এরই মধ্যে ২০১২ সালে পিউ নন্দীর সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয় অদ্বৈত। সব ঠিক-ঠাকই চলছিল, কিন্তু হঠাতই ফের ছন্দপতন। ২০১৩ সালের ২৪ শে জুন কাশ্মীরের হায়দারপুরে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং-য়ের কাশ্মীর সফরকালীন নিরাপত্তার দায়িত্বে কর্মরত অবস্থায় জঙ্গি হামলায় মৃত্যু হয় অদৈত্য নন্দীর। স্বামীর মৃত্যু সংবাদ পাঁচমুড়া গ্রামে পৌঁছাতেই সদ্য বিবাহিতা পিউ নন্দী স্বামী হারানোর শোকে আত্মহত্যা করেন তিনি। শহীদ অদ্বৈত নন্দীর ভাইয়ের ক্ষোভ, কেন্দ্র এবং রাজ্য সরকার শহীদের পরিবারের কোনও খোঁজ রাখে না। তাঁদের কোনও প্রকল্পের আওতাতেও নিয়ে আসা হয় না। ফলে শহীদদের পরিবারগুলির বর্তমান অবস্থা কি তার কোনও খবর নেই সরকারের কাছে।