বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবসের দিনে জেলাশাসকের দপ্তরের সামনে বিক্ষোভ প্রতিবন্ধীদের

0
75

সংবাদদাতা, বাঁকুড়া ও দক্ষিণ দিনাজপুরঃ-

আজ বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস, যথাযথ মর্যাদার সহিত বিশ্বজুড়ে এই দিনটি পালিত হচ্ছে। তবে বাঁকুড়ার জেলাশাসকের দপ্তরে আজ ছবিটা অন্যরকম। জেলাশাসকের দপ্তরের সামনে প্রায় ৭০০ প্রতিবন্ধী জমায়েত হন এবং বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। এরপর তাদের দাবি-দাওয়ার সম্বলিত জেলা শাসকের হাতে একটি স্মারকলিপি তুলে দেন। প্রতিবন্ধীরা সমাজের বুকে আর দশটা ভালো মানুষের মতো বেঁচে থাকতে চায়, নিজেদের ন্যায্য অধিকার ফিরে পেতে চায়, সমাজের বুকে মাথা উঁচু করে বাঁচতে চায়, সরকারি চাকরির ক্ষেত্রে তাদের কোটা বাড়াতে হবে, আর সেরকমই একাধিক দাবি-দাওয়া নিয়ে আর জেলাশাসকের দপ্তরে সামনে তারা বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন

এক প্রতিবন্ধী সন্তোষ পাল বলেন, বর্তমান দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি পাচ্ছে তাতে করে মাসিক ১০০০ টাকা ভাতাতে চলছে না। প্রতিদিন ১০০ টাকা হিসেবে অর্থাৎ মাসে ৩০০০ টাকা ভাতা দিতে হবে। প্রতিটি বাসে দুটি করে প্রতিবন্ধী সিট রাখতে হবে। বাস চালকদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে তিনি বলেন প্রতিবন্ধীদের দেখলে বাস থেকে নামিয়ে দেওয়া হয়। চাকরির ক্ষেত্রে সমস্ত সুযোগ সুবিধা পায় না। আমাদের যে ৩ শতাংশ দাবি-দাওয়া আছে তা বাড়িয়ে ১০ শতাংশ করতে হবে। প্রতিবন্ধীদের ন্যায্য দাবি দেওয়া থেকে বঞ্চিত করা চলবে না। এছাড়াও করুন সুরে তিনি বলেন সমাজে আমরা বেঁচে থাকতে চাই। যারা পড়াশোনা করেছে তাদের চাকরি দিতে হবে। চাকরির কোটা বাড়াতে হবে। এছাড়াও তিনি বলেন রাজ্য সরকার মুখে বলছেন কিন্তু কাজে কিছুই করছে না আমাদের জন্য। রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে বলেন আমরা মাসে যে ১০০০ টাকা পাই তাও প্রতি মাসে পাইনা। তাদের সমস্ত দাবি দাবি মানতে হবে যদি মানা না হয় তাহলে আগামী দিনে বৃহত্তর আন্দোলনের পথে নামবেন বলে হুঁশিয়ারি দেন তিনি। আবার অনদিকে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলাতেও এই দিনটি মহা সমারোহে পালন করল জেলা শিক্ষা দপ্তর। আজ প্রথমে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা শিক্ষা দপ্তরের পক্ষ থেকে একটি বর্নাঢ্য র‍্যালির আয়োজন করা হয় বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস উপলক্ষ্যে। তার পর বালুরঘাট নাট্যতীর্থ মঞ্চে একটি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হল দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা শিক্ষা দপ্তরের পক্ষ থেকে। এই অনুষ্ঠানে জেলা শিক্ষা দপ্তরের আধিকারিক বিমল কৃষ্ণ গায়েন, জেলা পরিষদের শিক্ষা কর্মাধক্ষ্য প্রবীর রায় সহ বিভিন্ন বিশিষ্ট জনেরা উপস্থিত ছিলেন। আজ জেলা শিক্ষা দপ্তরের পক্ষ থেকে বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন মানুষদের নিয়ে নাচে গানে মহা সমারোহে এই দিনটি পালন করা হল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here