এক অন্যরকম পুজোর আয়োজন ঝাঁজরায়

0
489

সোমনাথ মুখার্জি, লাউদোহা: – বাঙালির বারো মাসে তেরো পার্বণ একথা আমরা জানি। কিন্তু তার মধ্যে মৃত্যুর দেবতা যমরাজের পুজো ক জায়গায় হয় এটা অজানা।
লাউদোহার ঝাঁজরা গ্রামের অদূরে একটা নির্জন ফাঁকা জায়গায় বহু বছর আগে যমরাজের বাস বলে কথিত আছে ।বর্তমানে বাবা যমরাজের যেখানে ছোট্ট মন্দির স্থাপিত রয়েছে সেখানে আগে ছিল জঙ্গলে পরিপূর্ণ। তাই ভয়ে সেদিকে গ্রামের মানুষ জন কম যেতেন । ফলে একপ্রকার নিরবিচ্ছিন্ন ভাবেই সেই স্থানে বসবাস করতেন বাবা যমরাজ।বাবা যমরাজ সম্পর্কে অনেক অলৌকিক কথা ও প্রচলিত আছে এলাকায়। মন্দিরের পুরোহিত গৌতম চক্রবর্তী জানান,” জনশ্রুতি রয়েছে যে একদিন এক গো পালক গরু চরাচ্ছিলেন হটাৎ একটা আওয়াজ শুনতে পান, এখান থেকে চলে যা, শব্দ শুনে হতচকিত হয়ে যেই সেই স্থান থেকে সরে যান সেই মুহূর্তেই সেই জায়গায় একটা বিরাট গাছ ভেঙে পড়ে ,ফলে প্রাণে বেঁচে যান সেই ব্যক্তি। ব্যক্তির গ্রামে পৌঁছাতেই খবর ছড়িয়ে পড়ে সমগ্র গ্রামে। পড়ে সেখানে গিয়ে সিলা মূর্তি দেখা যায় স্বপ্নাদেশ পান তিনিই বাবা যমরাজ। সেই থেকেই ছোট আকারেই বছরের একদিন আজকের দিনেই বাবা পূজিত হতে আসেন। কিন্তু ২০১১ সালে গ্রামের কিছু যুবক স্থির করেন বাবা যমরাজের মন্দির স্থাপন করার । দান দক্ষিণা নিয়ে ছোট আকারের বাবা যমরাজের মন্দির স্থাপিত হয়।
আজকের দিনে বাবার পুজো ঘিরে ভক্তের সমাগম চোখে পড়ার মত। হাজার হাজার ভক্ত বাবার মন্দিরে পুজো দিতে ভিড় জমান এবং প্রায় পাঁচ হাজার ভক্ত বাবার অন্ন ভোগ খিচুড়ি খেয়ে তৃপ্ত হতে বাড়ি ফেরেন ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here