“চ্যানেল এই বাংলায়”-র সম্পাদকের অশোক কুন্ডু মহাশয়ের কৃত মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে “খোলা চিঠি”

0
861

এই বাংলায়-র সম্পাদকের কলম থেকেঃ শ্রদ্ধেয় শ্রী অশোক কুন্ডু মহাশয়, প্রথমে আপনাকে জানাই চ্যানেল এই বাংলায় ওয়েব পোর্টালের পক্ষ থেকে প্রনাম। তৎসহ জানাই গতকাল আমরা একটি সংবাদ পরিবেশন করেছিলাম, বোধহয় সেই সংবাদের পরিপ্রেক্ষিতে আপনার একটি মন্তব্য ফেসবুকে আপনার প্রোফাইলে পেলাম। পড়ে সত্যিই খুব কষ্ট হল যে আপনার মতো একজন দাপুটে ট্রেড ইউনিয়ন নেতা কোনও সংবাদ নিজে না পড়ে আপনার শুভাকাঙ্খীদের কথা শুনে মন্তব্য করেছেন। আপনি দীর্ঘদিন ধরে ASP কারখানার শ্রমিক সংগঠনের একজন শ্রদ্ধেয় এবং দাপুটে নেতা হিসেবে পরিচিত। গত পরশু দিন আপনি তৃণমূল শ্রমিক সংগঠন ত্যাগ করে ভারতীয় জনতা পার্টির মজদুর ট্রেড ইউনিয়নে যুক্ত হয়েছেন। এটি সম্পূর্ন আপনার ব্যক্তিগত ব্যাপার এবং আমাদের পোর্টালের পক্ষ থেকে আপনাকে তাঁর জন্য শুভেচ্ছা রইল। আপনি আপনার ফেসবুকে প্রোফাইলে গতকাল আমাদের নাম না করে “একটি পোর্টাল” উল্লেখ করেছেন যাতে আমাদের সম্মান রক্ষা হয়। আপনার জ্ঞাতার্থে জানাই আপনি যদি আমাদের পোর্টালের নামটি উল্লেখ করতেন তাহলে আমরা সম্মানিত বোধ করতাম। গতকাল আমরা যে সংবাদ পরিবেশন করেছিলাম সেটি মূলত সোশ্যাল মিডিয়াতে চলা আপনার অনুগামী ও মাননীয় শ্রী জীতেন্দ্র তিওয়ারি মহাশয়ের অনুগামীদের মধ্যে যে তরজা চলছিল তার পরিপ্রেক্ষিতেই লেখা। আপনি হয়তো অবগত আছেন যে আমরা সোশ্যাল মিডিয়া হিসেবে কাজ করি, সেহেতু সোশ্যাল মিডিয়াতে যেকোনো আলোচ্য বিষয় আমরা গভীর মনযোগ সহ অধ্যায়ন করি এবং প্রয়োজন হলে সেই সম্পর্কিত সংবাদ পরিবেশন করি। আমাদের প্রতিবেদনে কোথাও আমরা আপনার মুখে কথা লাগিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করিনি এবং আপনার সম্পর্কে কোনও বিকৃত খবর পরিবেশন করা হয়নি আর ভবিষ্যতেও হবেনা। আমরা শুধু আপনার ASP-র অনুগামীদের করা পোষ্ট থেকেই মূলত সংবাদের আলোচ্য বিষয় নিয়েছিলাম। সেই সংক্রান্ত স্ক্রিন শট এখানে আপনার জ্ঞাতার্থের জন্য দেওয়া রইল।

অন্যদিকে মাননীয় তৃণমূল জেলা সভাপতি শ্রী জীতেন্দ্র তিওয়ারীর তরফে করা একটি পোস্টকেও আমরা উক্ত সংবাদে ব্যবহার করেছি। সেই স্ক্রিন শটটিও আপনার জ্ঞাতার্থের জন্য এখানে দেওয়া রইল। এবার নিশ্চয় আপনি বুঝতে পেরেছেন যে আপনার কোনও মতামত বা আপনার প্রতিপক্ষের কোনও মতামত কেন নেওয়ার প্রয়োজন হয়নি। আরও বলি, আপনি এক জায়গায় লিখেছেন অত্যাধিক প্রচারের আশায় আমরা আমাদের নিজস্ব মতামত আপনার মুখে নাকি বসিয়ে দিয়েছি। আপনি জেনে আনন্দিত হবেন দক্ষিণবঙ্গের সবথেকে জনপ্রিয় এবং সর্বজনগৃহীত নিউজ পোর্টালের আরেক নাম “চ্যানেল এই বাংলায়”। তাই আমাদের কারোর বিরুদ্ধে মিথ্যা অপপ্রচার করে প্রচার পাওয়ার প্রয়োজন পড়ে না। আপনি আরও লিখেছেন আমাদের সংবাদ পরিবেশনে নাকি রাজনৈতিক পরিবেশ দূষিত হচ্ছে এবং আপনি নাকি কোনোদিনই তৃণমূল কংগ্রেসের কোনও দায়িত্বে ছিলেন না। যদি তাই হয়ে থাকে তাহলে INTTUC কী তৃণমূল কংগ্রেসের শ্রমিক সংগঠন নয়? আর রাজনৈতিক পরিবেশ দূষণ করার ক্ষমতা বা ইচ্ছা কোনওটাই চ্যানেল এই বাংলায়-র নেই, সেটা আপনাদের জন্যই রইল। আরও জানাই যে, আপনার কাছে আমাদের পরিবেশন করা খবরটি যদি কুরুচিকর মনে হয়ে থাকে তাহলে আমরা দুঃখিত। কিন্তু তার আগে আপনার অনুগামীদের সোশ্যাল মিডিয়াগুলিতে আপনার এবং আপনার বিরোধী দলের নেতাদের সম্পর্কে যেসব কুরুচিকর মন্তব্য করা হচ্ছে সেসম্পর্কেও আপনার ওয়াকিবহল থাকা উচিত ছিল। আমাদের বিনীত অনুরোধ আমাদের একজন মূল্যবান পাঠক হিসেবে আপনি আমাদের সাথে আছেন ও থাকবেন, দয়া করে আমাদের পরিবেশিত সংবাদগুলি নিজে একবার পড়ে তার পরেই মন্তব্য করবেন এই আশা রাখি। নমস্কারান্তে জানাই, আপনার রাজনৈতিক পরিচয় ছাড়াও আপনার সাথে আমার একটি পারিবারিক সম্পর্কও আছে। কারণ আমার পিতৃদেব আপনার ASP-র সহকর্মী এবং আপনার ঘনিষ্ঠ বন্ধুদের মধ্যে একজন। তাই আপনি আমার কাছে আমার পিতৃতুল্য সম্মানের যোগ্য। আর আমি তা সবসময় দিয়ে থাকি ও থাকব। চ্যানেল এই বাংলায় কখনো কারোর ভাবাবেগ, চরিত্রহনন, ব্যক্তিগত আক্রমণ করে না ও করবে না। সমাজের ঘটে চলা দৈনন্দিন ঘটনার ও ঘটনাবলীর সত্য অনুসন্ধান করে তা পরিবেশন করায় আমাদের মূল উদ্দেশ্য। আপনাকে চ্যানেল এই বাংলায়-র সম্পাদক হিসেবে স্বশ্রদ্ধ প্রনাম জানিয়ে ভবিষ্যতেও আপনার ভালোবাসা, আশীর্বাদ ও সহায়তা কামনা করি।