কালোবাজারি রুখতে ওষুধের দোকান গুলিতে অভিযান চালালেন ড্রাগ কন্ট্রোলের আধিকারিকরা

0
176

সংবাদদাতা, বাঁকুড়াঃ- করোনা আতঙ্কে ভূগছে সারা দেশ। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নির্দেশে সারা দেশে আগামী ২১ দিনের জন্য ‘লক ডাউন’ শুরু হয়েছে। এই অবস্থায় ওষুধের কালোবাজারি রুখতে বুধবার রাতে বাঁকুড়া শহরের পাইকারী ও খুচরা ওষুধের দোকান গুলিতে অভিযান চালালেন ড্রাগ কন্ট্রোলের আধিকারিকরা। এদিন বাঁকুড়া ড্রাগ কন্ট্রোল দপ্তরের ইন্সপেক্টর সুদীপ যশ ও ড্রাগ কন্ট্রোলের সহকারী ডিরেক্টর ও বাঁকুড়া রিজিওনের ডেপুটি ডিরেক্টরের দায়িত্বপ্রাপ্ত ডাঃ জয়ন্ত চৌধুরী শহরের দোকান গুলি ঘুরে তাদের মজুত ও বিক্রিত ওষুধের হিসাব মিলিয়ে দেখার পাশাপাশি সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীদের বেশ কিছু নির্দেশ দেন। কোন অবস্থাতেই এক জনকে আগামী ১৫ দিনের বেশী ওষুধ যেমন দেওয়া যাবেনা, তেমনি স্বীকৃত চিকিৎসকের প্রেসক্রিপশান ছাড়া ওষুধ বিক্রি করা যাবেনা বলেও স্পষ্ট নির্দেশ দেন। এই নির্দেশিকা অমান্য করলে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে সংশ্লিষ্ট আধিকারিকরা স্পষ্টতই জানিয়ে দিয়েছেন। পরে ড্রাগ কন্ট্রোলের সহকারী ডিরেক্টর ও বাঁকুড়া রিজিওনের ডেপুটি ডিরেক্টরের দায়িত্বপ্রাপ্ত ডাঃ জয়ন্ত চৌধুরী সাংবাদিকদের বলেন, বিষ্ণুপুরের পর বাঁকুড়া শহরের দোকান গুলি ঘুরে দেখছি। দেশের এই চরম মুহূর্তে যাতে ওষুধের কৃত্রিম সংকট তৈরী না হয় সেবিষয়টির উপর জোর দেওয়া হচ্ছে। একই সঙ্গে দু’টি বিশেষ ধরণের ওষুধ যাতে প্রেসক্রিপশান ছাড়া বিক্রি না করা হয় তার নির্দেশ দেওয়া হয়। ঐ বিশেষ ধরণের ওষুধ দু’টি করোনা ভাইরাসের প্রতিষেধক হিসেবে কাজ করবে বলে রটনা রয়েছে। যদিও বাস্তবে তা নয়। তাই প্রেসক্রিপশান ছাড়া ঐ ওষুধ বিক্রি করলে সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থার পাশাপাশি প্রয়োজনে দোকানের লাইসেন্স বাতিল করা হবে বলে তিনি জানান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here