থানা সরছে বিয়ে বাড়ীতেঃ খন্ডঘোষ থানার ওসি সহ ১৮ জন পুলিশ করোনায় কাবু

0
509

সংবাদদাতা, খন্ডঘোষঃ- আস্ত একটি থানার প্রায় সব করোনা-যোদ্ধাই এবার কোভিড আক্রান্ত। মোট ১৮ জন। তাদের মধ্যে আবার থানার ওসি নিজেই এই নিয়ে দ্বিতীয়বার করোনা’য় ধরাশায়ী হওয়ায় তাকে কলকাতায় একটি বেসরকারি হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। এই নিয়ে বিস্তর চাঞ্চল্য পূর্ব বর্ধমানের খন্ডঘোষে।
এপ্রিলের মাঝামাঝি এখানকার বাদুলিয়া গ্রামে প্রথম করোনা রোগীর সন্ধান মেলে। তারপর দুবরাজহাট, কাপসিট, খন্ডঘোষ-তাঁতিপাড়ায় পর পর করোনা আক্রান্তের হদিশ মেলে। গুচ্ছ গুচ্ছ এলাকায় কন্টেনমেন্ট জোন ঘোষনা করেও থামানো যায়নি সংক্রমন। এরই মাঝে জুন মাসে করোনা আক্রান্ত হন খন্ডঘোষ থানার ওসি প্রসেনজিৎ দত্ত। তারপরই গোটা থানা স্যানিটাইজ করার পর সমস্ত পুলিশ কর্মীদের মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করা হয়। তারপরই ফের সংক্রমন।
এই পরিস্থিতিতে গোটা থানা ভবনটিকে তালাবন্ধ রেখে, পাশেই একটি অনুষ্ঠান বাড়ী ভাড়া করে থানার কাজ চালানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে, বলে পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে। পুলিশ সুপার ভাস্কর মুখারজী’র বক্তব্য, “পুলিশের রুটিন কাজ ও পরিষেবা বজায় রাখতে কিছু প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে।”
শুক্রবার রাত্রে খন্ডঘোষ থানার চারজন পুলিশ কর্মীর কোভিড ধরা পড়ে। তাই, শনিবার থানার ৫১ জন পুলিশ কর্মী ও আধিকারিকের র‍্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্ট করা হয়। শনিবার সন্ধ্যায় তাদের মধ্যে ১৮ জনের কোভিড-পজিটিভ ধরা পড়ে। এরপরই তীব্র চাঞ্চল্য ছড়ায় থানায় ও এলাকায়। খন্ডঘোষ থানা এলাকাতেই বাড়ী পূর্ব বর্ধমান জেলা পরিষদের সভাধিপতি শম্পা ধাড়া’র। তিনি বলেন, “পুলিশ কর্মীরা করোনা আক্রান্ত হওয়ায় এখানকার মানুষ চিন্তিত। তবে, মানুষের মনোবল বাড়াতে, এলাকায় সচেতনতা বাড়াতে এগিয়ে আসছেন সেই পুলিশ কর্মীরাই। বহু থানার বহু পুলিশ কর্মী ইতিমধ্যেই করোনা-মুক্ত হয়ে ফিরে এসেছেন স্বাভাবিক জীবনে। এই বার্তাই তুলে ধরা হচ্ছে বার বার।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here