কাঁকড়া ধরতে গিয়ে বাঘের আক্রমনে নিহত হলেন এক মৎসজীবী

0
449

সংবাদদাতা, দক্ষিন ২৪ পরগনাঃ- আর্থিক টানে সুন্দরবনের অভয়ারণ্যে কাঁকড়া ধরতে গিয়ে বাঘের হানায় মৃত্যু হল এক মৎসজীবীর। এই চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিন ২৪ পরগনার সুন্দরবন ব্যাঘ্র প্রক্লপের বসিরহাট রেঞ্জের কাঁকসার জঙ্গলে। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মৃত মৎসজীবীর নাম রামপদ মণ্ডল। এদিন চারজনের একটি মৎসজীবীর দল কাঁকড়া ধরতে কাঁকসার জঙ্গলে যায়। জঙ্গলে নেমে কাঁকড়া ধরার সময় হঠাৎই একটি বাঘ রামপদ বাবুর ওপরে ঝাপিয়ে পড়ে। বাঘের আক্রমনে গুরুতর জখম হন রামপদ বাবু। এরপরে তিনজন মৎসজীবী কোনোরকমে রামপদ বাবু কে বাঘের হাত থেকে উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। কিন্তু পথে নৌকাতেই রামপদ বাবুর মৃত্যু হয়।
এই ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌছায় বন দপ্তরের কর্মীরা। এরপরে বন দপ্তরের কর্মীরা রামপদ বাবুর নিথর দেহটি কে উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠায়। এদিকে নিহত রামপদ বাবু এবং তাঁর বাকি সঙ্গীদের কাছে বনের মধ্যে প্রবেশ করার কোনো বৈধ কাগজ ছিল কিনা তা খতিয়ে দেখছে বন দপ্তরের কর্মীরা। কারন, সুন্দরবনের জঙ্গলে যে সব মৎসজীবীর কাঁকড়া বাঁ মাছ ধরতে যান তাদের বেশীরভাগের কাছেই অনুমতি পত্র থাকে না। ফলে দুর্ঘটনার পরেও তাদের সরকারি সাহায্য মেলে না।
উল্লেখ্য, সুন্দরবনের জঙ্গলে বেশীরভাগ সময়েই হানা দেয় বাঘ। বহুবার একাধিক মৃতুর ঘটনাও ঘটে থাকে। আবার কিছু কিছু সময়ে বাঘের সঙ্গে লড়াই করে প্রান বাঁচিয়ে মুক্তি পায় বিভিন্ন মৎসজীবীর দল। কিন্তু ইদানীং ক্রমাগত দুর্ঘটনার শিকার হলেও সতর্ক হচ্ছেন না মৎসজীবীরা। আর সেই কারনেই খোয়া যাচ্ছে কিছু প্রান। এমনটাই মনে করেছেন বন কর্মীরা। অন্যদিকে রামপদ বাবুর আক্সমিক মৃত্যুতে তার পরিবার ভেঙে পড়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here