এই বাংলায় আপনার আজকের রাশিফল (২২শে মে, ২০১৯, বুধবার)

0
598

৭ জ্যৈষ্ঠ, ইং ২২ মে, মুং ১৬ রমজান, (ভাঃ তাং ১ জ্যৈষ্ঠ)।
অ ৭ জেঠ, ফসলী ৪ জ্যৈষ্ঠ (জেঠ), সংবৎ ৪ জ্যৈষ্ঠ বদি।

মেষ রাশিঃ শিক্ষাক্ষেত্রে সাফল্য লাভ, উচ্চশিক্ষার সুযোগ সদ্ব্যবহার না করলে আফশোষ থেকে যাবে। আত্মীয়স্বজনদের সঙ্গে মনোমালিন্য বাড়তে পারে। পড়ুয়া এবং শিক্ষক-শিক্ষিকা, গবেসকদের জন্য শুভ সময়। সবামী-স্ত্রীর মধ্যে ভুল বোঝাবুঝির অবসান। আর্থিক দিক থেকে শুভ সময়।
প্রতিকারঃ কচি কলা পাতা রঙের বস্ত্র পরিধান করুন ও সকাল সকাল স্নান সেরে সূর্য প্রনাম করুন।

বৃষ রাশিঃ মানসিক দৃঢ়তা কর্মে জটিলতা কাটাতে সহায়তা করবে। সহকর্মীদের অসহযোগিতা ব্যবসায় মন্দা দেখা দিতে পারে। পেটের রোগে ভোগার আশঙ্কা। অংশীদারী ব্যবসায় ক্ষতির আশঙ্কা। ছাত্র-ছাত্রীদের শুভ সময়। ছোটখাটো দুর্ঘটনা থেকে আঘাত পেতে পারেন।

প্রতিকারঃ সারাদিন নিরামিষ ভোজন করুন ও সম্ভব হলে লক্ষ্মীর পাঁচালি পড়ুন।

মিথুন রাশিঃ মিথুন রাশির জাতক-জাতিকাদের জন্য আজকের দিনে মানসিক চাপ বাড়বে। কর্মক্ষেত্রে বাধার সম্মুখীন হতে পারেন। তবে জমি-জমা বা সম্পত্তি সংক্রান্ত মামলা আপনার পক্ষেই থাকার সম্ভাবনা বেশি। পরিজনের অসুখে দুশ্চিন্তা বাড়বে। শরীরের নিম্নাঙ্গে বাতের প্রকোপ বাড়তে পারে। আর্থিক পাওনা চাইতে গিয়ে গন্ডগোলের আশঙ্কা। স্বামী-স্ত্রীর মধ্যের মধুর সম্পর্ক বজায় থাকবে।

প্রতিকারঃ আজ তিনজন বালিকাকে সেবা করান এবং সম্ভব হলে হনুমান মন্দিরে পুজো দিন।

কর্কট রাশিঃ ব্যবসায় বিপুল মুনাফা লাভের যোগ। অত্যধিক বিলাসিতা সঞ্চয়ের পথে বাঁধা হয়ে দাঁড়াতে পারে। শারীরিক অসুস্থতায় ভোগান্তির আশঙ্কা। নতুন অংশীদারী ব্যবসায় ভেবেচিন্তে বিনিয়োগ করুন। লটারি বা শেয়ার সূত্রে অর্থ আমদানীর যোগ।

প্রতিকারঃ লক্ষ্মী-নারায়নের মন্দিরে গিয়ে পুজো দিন। সারাদিন নিরামিষ আহার করুন। শ্বেত বস্ত্র পরিধান করুন।

সিংহ রাশিঃ শত্রুর ক্ষমতা হ্রাসে মানসিক শান্তি। আর্থিক লেনদেনের ফলে বন্ধুর সঙ্গে সম্পর্কহানির আশঙ্কা। শারীরিক অসুস্থতা এবং মানসিক পীড়া সংসারে প্রভাব ফেলতে পারে। ছোটখাটো বিষয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে গলযোগের আশঙ্কা।

প্রতিকারঃ হনুমান মন্দিরে গিয়ে পুজো দিন। গেরুয়া বস্ত্র পরিধান করুন ও বাড়িতে প্রথম আসা ভিক্ষুককে যথাসাধ্য দান করুন।

কন্যা রাশিঃ শুভ বুদ্ধির উদয় এবং কর্মক্ষেত্রে পদোন্নতি অবশ্যম্ভাবী। পারিবারিক দূরত্ব বৃদ্ধি গুরুজনদের নিরাশ করবে। স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্কে অবনতি লক্ষ্যনীয়। আর্থিক দিক থেকে স্বচ্ছল হলেও অতিরিক্ত ব্যয়ে সঞ্চয় হ্রাস পাবে। পরিবারের সঙ্গে সময় কাটান।

প্রতিকারঃ বাড়ির তুলসী মন্দিরে সন্ধ্যা আরতি করুন। গাওয়া ঘিয়ের প্রদীপ জ্বালান। নিরামিষ আহার করুন। বাড়ির বয়স্কদের আশীর্বাদ নিয়ে বাইরে কাজে বেরোন।

তুলা রাশিঃ কর্মক্ষেত্রে জটীলতায় চাকরি ছাড়তে হতে পারে। তবে নতুন জায়গায় চাকরি জটীলতা প্রশমন করবে। দুষ্ট লোকের কূটচাল থেকে নিজেকে দূরে রাখুন। রক্তচাপের সমস্যায় ভোগান্তি বাড়বে। স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে সুসম্পর্ক বজায় থাকবে। সন্তানদের শিক্ষা নিয়ে চিন্তা বাড়বে।

প্রতিকারঃ বড় ঠাকুরের (শ্রী শ্রী গ্রহ মহারাজ) মন্দিরে গিয়ে দর্শন ও পুজো করুন। সম্ভব হলে কালো বস্ত্র পরিধান করুন।

বৃশ্চিক রাশিঃ গুরুজনদের স্নেহলাভ থেকে বঞ্চিত হওয়ার আশঙ্কা। আইনী মামলা বিপরীতে যেতে পারে। দাম্পত্য জীবনে শান্তি মানসিকভাবে দৃঢ় থাকতে সাহায্য করবে। আর্থিকভাবে ক্ষতির আশঙ্কা। কাউকে বিশ্বাস করে মনের কথা বললে ক্ষতির আশঙ্কা রয়েছে।

প্রতিকারঃ গুরু দীক্ষা নেওয়া থাকলে কাজে যাওয়ার আগে গুরুকে স্মরণ করুন। রাস্তার ধারে যেকোনো মন্দিরে ধূপকাঠি দেখিয়ে দিন শুরু করুন।

ধনু রাশিঃ আর্থিক লেনদেন থেকে দূরে থাকুন। পরিবারের সদস্যের শারীরিক অসুস্থতায় মানসিক ও আর্থিকভাবে বিপর্যস্ত হওয়ার আশঙ্কা। স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে মনোমালিন্যের আশঙ্কা। বাড়ির বয়স্কদের শারীরিক বিষয়ে উদ্বেগ বাড়বে।

প্রতিকারঃ রক্ষাকালীর পুজো করুন বা যেকোনো কালীমন্দিরে গিয়ে সন্ধ্যারতি করুন। বিরূপ প্রভাব কেটে যাবে।

মকর রাশিঃ কর্মক্ষেত্রে উন্নতির সম্ভাবনা। ফাটকা, লটারি, শেয়ার মার্কেট বা প্রতারনার ফাঁদ থেকে দূরে থাকুন অন্যথা ক্ষতির সম্মুখীন হবেন। কাছের লোকের কাছ থেকে প্রতারিত হওয়ার আশঙ্কা। বাড়ির ছেলেমেয়েদের দিকে সতর্ক দৃষ্টি রাখুন।

প্রতিকারঃ মহা মৃত্যুঞ্জয় মন্ত্র পাঠ করুন ও সন্ধ্যাবেলায় শিব মন্দিরে গিয়ে প্রসাদ গ্রহণ করুন।

কুম্ভ রাশিঃ চাকরি কিংবা উচ্চশিক্ষায় বিদেশ ভ্রমণের সুযোগ। অংশীদারী ব্যবসায় মনোমালিন্যের জেরে ব্যবসা ও আর্থিক ক্ষতির আশঙ্কা। ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য ভালো সময়। শিক্ষক-শিক্ষিকাদের পদোন্নতি প্রাপ্তির সুযোগ।

প্রতিকারঃ সকাল সকাল স্নান সেরে সরস্বতী বন্দনা করুন। পারলে আজকের দিনে নিরামিষ আহার করুন। সঙ্গে লাল রঙের কোনও একটি কাপড় নিয়ে বাড়ি থেকে বেরোন।

মীন রাশিঃ দুষ্ট লোকের ছলচাতুরি থেকে সতর্ক থাকুন। সংসারের দায়িত্বের জেরে ব্যয় বাড়বে। কোনও দুষ্ট মহিলার চক্রান্তে পড়ে বিপদের আশঙ্কা। আধ্যাত্মিক চেতনা মন শান্ত রাখবে।

প্রতিকারঃ ঘুম থেকে উঠে ধ্যান করুন এবং স্নান সেরে নবদূর্গার মূর্তিতে পুজো ও আরতি করুন।