কোথাও চ্যালেঞ্জ অনুব্রতর, কোথাও চ্যালেঞ্জের মুখে সুব্রত আবার কোথাও টোটো চালিয়ে শ্যামল – ভোট প্রচারে কত রঙ্গ!

0
655

এই বাংলায়, নিউজ ডেস্কঃ অনুব্রত মণ্ডল মানেই যে বিতর্ক তার চারপাশে কেন্দ্র করেই বিরাজ করে তা বর্তমানে রাজনীতি থেকে শত যোজন দূরে থাকা মানুষও ভালোই জানেন। আর সেহেন অনুব্রত মণ্ডল যে লোকসভা নির্বাচনের আগে ফের আবেগে ভাসবেন তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। তাই রবিবার লোকসভা ভোটের প্রচারে বুদবুদের দেবশালায় অনুব্রত মণ্ডলের সভায় নিজস্ব স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতেই পাওয়া গেল বীরভূম জেলার তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি অনুব্রত মন্ডলকে। প্রচারের শুরু থেকেই বিজেপি তথা নরেন্দ্র মোদীকে চাঁচাছোলা ভাষায় আক্রমন করলেন তিনি। তার বক্তব্য, নির্বাচনে এবার কোনো বিরোধী নেই, তাই এবারের নির্বাচন বড়ই দুর্বল। বিরোধীরা জন্ডিস রোগে ভুগছে বলে মন্তব্য করেন বীরভূম জেলা সভাপতি। অমিত শাহকে এক হাত নিয়ে অনুব্রত মণ্ডল জানান, উনি পাগল, তার উপরে মোটা মানুষ, গ্যাস হয়ে গেলে ভুলভাল বকেন। এর পাশাপাশি, বুদবুদের দেবশালা ফুটবল মাঠ থেকে নরেন্দ্র মোদির উদ্দেশ্যে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়ে অনুব্রত মণ্ডলের বক্তব্য, বুদবুদের দেবশালা ফুটবল মাঠে স্থানীয় বিজেপি কর্মীদের নিয়ে মিটিং করে এত লোক জড়ো করে দেখাতে পারলে তিনি রাজনীতি ছেড়ে দেবেন বলেও জানান। একদিকে লোকসভা ভোটে জয়ের ব্যাপারে যখন তুমুল আত্মবিশ্বাসী বীরভূমের জেলার তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি অনুব্রত মন্ডল তখন
গ্রীষ্মের দাবদাহ এবং রোদের উত্তাপ যতই বাড়ছে নির্বাচনী প্রচারের পারদও বাঁকুড়া জেলায় তত চড়ছে। রবিবারের পর সোমবারও সাইকেলের পর এবার টোটো চালিয়ে নির্বাচনী প্রচার সারলেন বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী অধ্যাপক শ্যামল সাঁতরা। সোমবার কোতুলপুর ব্লকের মির্জাপুর অঞ্চলের ১২টি গ্রামে প্রচার চালাচ্ছেন। অধ্যাপক শ্যামল সাঁতরাকে টোটো চালাতে দেখে খুশির হাওয়া সাধারন কর্মীদের মধ্যে। শুধু টোটো চালানোয় নয় কর্মীদের সাথে জুড়ি বাজিয়ে তালে তালে নাচতেও দেখা গেল শ্যামল সাঁতরাকে। ধামসা মাদল নিয়ে হাজার হাজার কর্মী-সমর্থক তার নির্বাচনী প্রচারে অংশ নেন। বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্রে যখন কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে স্বতঃস্ফূর্তভাবে ভোট প্রচারে অংশগ্রহণ করছেন তৃণমূল প্রার্থী শ্যামল সাঁতরা, তখন সোমবার বাঁকুড়ার মেজিয়াতে কর্মীসভায় যোগ দিয়ে একপ্রস্থ নির্বাচনী বৈঠক সারলেন বাঁকুড়া লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী সুব্রত মুখোপাধ্যায়। কর্মীসভার পাশাপাশি তিনি এদিন নির্বাচনী প্রচারেও অংশগ্রহণ করেন। তার প্রচার সভাকে কেন্দ্র করে মিছিলেও অগুনতি মানুষ ভিড় জমান। মেজিয়া বাজার সংলগ্ন এলাকায় তিনি কর্মীদের নিয়েই প্রচার করেন। উল্লেখ্য, গতবার মুনমুন সেন এই কেন্দ্র থেকে জয়লাভ করেছিলেন, তবে এই বছর সেখানে মুনমুন সেনকে বদল করে প্রার্থী করা হয়েছে সুব্রত মুখোপাধ্যায়কে। মুখ্যমন্ত্রীর ভরসার জবাব দিতে এবং লোকসভা ভোটে বাঁকুড়া কেন্দ্র থেকে জয়লাভ করতে তাই মরিয়া সুব্রত মুখোপাধ্যায়। সেই মতো রোদ, জল, ঝড়কে উপেক্ষা করেই প্রচার কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি।