জমির দখলদারিকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্র জামুড়িয়া শিল্পতালুক

0
872

নিউজ ডেস্ক, এই বাংলায়ঃ জমির দখলদারী কার হাতে থাকবে? এই নিয়ে দুইপক্ষের মধ্যে তুমুল বচসার জেরে বুধবার রণক্ষেত্রের চেহারা নিল আসানসোলের জামুরিয়া শিল্পতালুকের বিজয়নগর এলাকা। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বিজয়নগরের ইকরা ব্রিজের কাছে বেশ কয়েক একর জমি মালিকানাহীন অবস্থায় পড়েছিল। বুধবার ওই জমির দখলদারী নিয়ে স্থানীয় শ্যামসেল লিমিটেড ও গগন ফেরোটেক স্পঞ্জ আয়রন ফ্যাক্টরি নিরাপত্তারক্ষীদের মধ্যে বচসা শুরু হয়। বচসা ক্রমে হাতাহাতিতে পৌঁছালে দুইপক্ষের মধ্যে শুরু হয় ইট, লাঠি, বাঁশ নিয়ে দুপক্ষের মধ্যে তুমুল মারপিট। শুধু তাই নয়, নিরাপত্তারক্ষীদের বিশ্রামাগারেও আগুন লাগিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। ঘটনার খবর পেয়ে কেন্দা ফাড়ির বিশাল পুলিশবাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। শ্যামসেল কারখানার সহসভাপতি সুমিত চক্রবর্তী জানান, বহুদিন ধরে গগন ফেরোটেক স্পঞ্জ আয়রন ফ্যাক্টরি কর্তৃপক্ষ বহুদিন ধরে তাদের ওই জমিটি দখল করে রেখেছে। গত তিনদিন আগে ভূমি দফতরের এক আধিকারিক জায়গাটি চিহ্নিত করে গিয়েছিলেন। বুধবার ফের তিনি ওই জমিটি জরিপ করতে এলে তাকে বেধড়ক মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। যদিও শ্যামসেলের এই অভিযোগ সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছে গগন ফেরোটেক স্পঞ্জ আয়রন কারখানা কর্তৃপক্ষ। তাদের পাল্টা অভিযোগ, জমিটি গগন ফেরোটেক আয়রন কারখানার নিজস্ব জমি। শ্যামসেল বেআইনিভাবে তাদের জমিটি আটক করে রেখেছে। বুধবার সেই জমি ফেরতে দাবি জানালে নিরাপত্তারক্ষীরা তাদের লক্ষ্য করে ইট, পাথর, লাঠি নিয়ে চড়াও হয়। যদিও ঘটনায় এখনও কেউ গ্রেফতার হয়নি।