দুর্গাপুরের বিক্ষোভ কর্মসূচীতে এসে বিরোধীদের কালো চশমা পরানোর কথা বললেন আসানসোলের মেয়র

0
397

সংবাদদাতা, আসানসোলঃ- রেলের বেসরকারিকরণ, পেট্রোল ও ডিজেলের মুল্য বৃদ্ধি, কেন্দ্র সরকারের জনবিরোধী নীতির বিরুদ্ধে পশ্চিম বর্ধমান জেলার বিভিন্ন জায়গায় তৃনমুল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে সুপ্রিম লাগাতার আন্দোলন করলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের নির্দেশেই। মঙ্গলবার এ নিয়ে তৃনমুল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে ধর্ণা ও বিক্ষোভ আন্দোলন করা হয় ওয়ারিয়া স্টেশনের কাছে। সেখানে প্রধান বক্তা হিসাবে উপস্থিত ছিলেন আসানসোল পুরনিগমের মেয়র তথা পশ্চিম বর্ধমান জেলা তৃনমুল কংগ্রেসের সভাপতি জিতেন্দ্র তেওয়ারি। তিনি বলেন, “পুরনিগমে আমরা যখন কোন কাজ করতে পারিনা, তখন সেই কাজ ঠিকাদারের মাধ্যমে করানো হয়। এখন কখনো রেল, কোলিয়ারি ও সেলকে বেসরকারি সংস্থার হাতে দেওয়া হচ্ছে। এর থেকে প্রমাণ হয় যে, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এইসব কোম্পানিকে চালাতে পারছেন না। কোল ইন্ডিয়ায় ১০০ শতাংশ বিদেশি বিনিয়োগ করা হচ্ছে। যদি তারা এই কোম্পানিকে চালাতে না পারে, দেশের কয়লা মন্ত্রী তবে পদত্যাগ করুন। সরকারি কোম্পানিগুলোকে বেসরকারি সংস্থার হাতে না দিয়ে, সরকারের মন্ত্রীদের ইস্তফা দেওয়া উচিত। তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি যেসব কোম্পানিকে বেসরকারি সংস্থার হাতে দিচ্ছেন, তারমধ্যে একটাও কি তিনি করেছেন? আপনি দেশের স্বাধীনতার পরে যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করছেন, তারাই এইসব কোম্পানি তৈরী করেছিলেন। এইসব কোম্পানি বিজেপির টাকায় নয়, বরং দেশের মানুষের টাকায় তৈরী হয়েছে। আগের সরকার এইসব তৈরী জিনিস আপনি বিক্রি করে দিচ্ছেন। আপনার যদি বিক্রি করার থাকে, তাহলে দিল্লিতে হাজার হাজার কোটি টাকায় বিজেপির অফিসটা বিক্রি করুন। আপনি আডানি, আম্বানি, চোকসি ও নীরব মোদি তৈরী করেছেন। তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত করুন৷ আপনি বা আপনারা যেটা তৈরী করেননি, সেগুলো বিক্রি করলে কি করে দেশের মানুষেরা মানবেন। “তিনি আরো বলেন,” রাবনের রাজ্যে পেট্রোল ৫১ টাকা ও রাম রাজ্যে ৮২ টাকা দাম। রামের নাম করে এখানে রাবণ রাজ চালু করে দিলেন না তো? বাইরে মার্কেটিং- এর জন্য রামের নাম, কিন্তু কাজ তো রাবনের মতো। দেশের মানুষের টাকায় তৈরী জিনিস নিয়ে টানাটানি করলে দেশের মানুষ আপনাকে সরিয়ে দেবে। সরকারি কোম্পানিকে বিক্রি করা কোনভাবেই মেনে নেওয়া হবে না। “দিদির নেতৃত্বে বাংলার ঐতিহ্য রক্ষা করতে আমরা লড়াই করবো৷ বাংলার দিকে যে বা যারা চোখ উঠিয়ে দেখবে, আমরা তাদের চোখে কালো চশমা পড়িয়ে দেবো। -এ দিনের এই বার্তা ও বিক্ষোভে উপস্থিত ছিলেন দূর্গাপুর পুরনিগমের মেয়র দিলীপ অগস্থি, মেয়র পারিষদ প্রভাত চট্টোপাধ্যায়, রাখী তেওয়ারি, পবিত্র চট্টোপাধ্যায় সহ অনেকেই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here