বাঁকুড়ায় বন্যপ্রাণী শিকার উৎসব আদিবাসী সম্প্রদায়ের

0
834

নিজস্ব প্রতিনিধি, বাঁকুড়াঃ বন্যপ্রান হত্যা দন্ডনীয় অপরাধ হলেও বছরের বিশেষ দিনে আদিবাসী সম্প্রদায়ভুক্ত মানুষের জন্য নির্দিষ্ট কয়েকটি দিন কয়েক প্রজাতির পশু শিকারে স্বাধীনতা রয়েছে। বাঁকুড়ার তালডাংরা সংলগ্ন জ্বালা জঙ্গল বা তালডাংরা থেকে রতনপুর যাবার মধ্যস্থিত জঙ্গলে আদিবাসী সম্প্রদায়ভুক্ত মানুষরা বৃহস্পতিবার মেতে উঠলেন বন্যপ্রানী শিকার উৎসবে। জানা গেছে, চৈত্র মাসের ১২ এবং বৈশাখ মাসের ১২ তারিখ এই দুদিন অবাধ স্বাধীনতা থাকে আদিবাসীদের শিকারের ক্ষেত্রে। শিকার উৎসবে আসা এক আদিবাসী সম্প্রদায়ভুক্ত ব্যক্তি শুকলাল মান্ডির অভিযোগ, একশ্রেনীর মানুষ নিজেদের স্বার্থসিদ্ধির জন্য জঙ্গলে আগুন লাগিয়ে দিচ্ছে। ফলে শুকনো পাতায় আগুন নিমেষে কয়েক কিলোমিটার ছড়িয়ে পড়ছে। ফলে আগুনের হাত থেকে প্রাণ বাঁচাতে বন্যপ্রানীরা জঙ্গল ছেড়ে অন্য জঙ্গলে পালিয়ে যাচ্ছে। তাই এইবছর শিকার উৎসবে সকলকেই খালি হাতে ফিরে যাচ্ছে হচ্ছে বলে আক্ষেপ তার। তাঁর কথায়, সাঁওতাল সমাজের মধ্যে যোগাযোগের এক অন্যতম মাধ্যম হল শিকার উৎসব। কিন্তু আগে যেখানে জঙ্গলে খরগোশ, বনশূকর ভর্তি ছিল, বর্তমানে সেই জঙ্গল ফাঁকা। তাদের বক্তব্য, জঙ্গলে আগুন লাগানোর ফলে যেমন জঙ্গলের ক্ষতি হচ্ছে, তেমনি মানুষেরও বিপদ বাড়ছে। আর এর ফলে তাদের সম্প্রদায়ভুক্ত মানুষদের বছরের বিশেষ দিনে শিকার না পেয়ে খালি হাতে নিরাশ হয়ে ফিরতে হচ্ছে। শিকার করতে আসা আদিবাসী সম্প্রদায়ের মানুষদের দাবী, বনদপ্তরের সঙ্গে সঙ্গে সাধারণ মানুষও যদি একটু সজাগ হয় তাহলে জঙ্গল এবং বন্যপ্রাণ রক্ষা করা সম্ভব।