তৃণমূল কর্মীর চোখে লঙ্কা গুড়ো ছিটিয়ে বেধড়ক মারধর, অভিযুক্ত বিজেপি

0
1807

নিউজ ডেস্ক, এই বাংলায়ঃ লোকসভা ভোট অতীত, রেকর্ড সংখ্যক ৮ হাজার ভিআইপি ও ভিভিআইপি অতিথিদের সামনে বৃহস্পতিবার দ্বিতীয়বার দেশের প্রধানমন্ত্রী পদে শপথ নিচ্ছেন নরেন্দ্র দামোদর দাস মোদি। কিন্তু এই একদিকে যখন দেশের প্রধানমন্ত্রী পদে শপথ নিচ্ছেন বিজেপি সুপ্রিমো নরেন্দ্র মোদী তখন অন্যদিকে রাজ্যে এখনও তৃণমূল-বিজেপি সংঘাত অব্যহত। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রধানমন্ত্রীর শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকার কথা জানালেও শেষপর্যন্ত শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত হতে পারেন নি তিনি। কিন্তু এতকিছুর পরেও রাজ্যে রাজনৈতিক সন্ত্রাস পিছু ছাড়ছে না, যার আরও এক দৃষ্টান্ত বাঁকুড়ার বড়জোড়া পোখন্না পঞ্চায়েতের চান্দাই গ্রাম। সেখানে তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মীদের চোখে লঙ্কার গুড়ো ছিটিয়ে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ উঠল বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতিদের বিরুদ্ধে। তৃণমূলের অভিযোগ, বুধবার সন্ধ্যা নাগাদ চান্দাই গ্রামের তৃণমূল পার্টি অফিসে আচমকায় হামলা চালায় ৩০-৪০ জনের একটি দুষ্কৃতি দল। পার্টি অফিসে বেপরোয়া ভাঙচুরের পাশাপাশি দাঁড়িয়ে থাকা একাধিক গাড়িও ভেঙে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়। তৃণমূলের অভিযোগ, বিজেপি আশ্রিত দুস্কৃতিদের বাধা দিতে গেলে দলীয় কর্মীদের চোখে লঙ্কা গুড়ো ছিটিয়ে বেধড়ক মারধর করা হয়। এরপর পালানোর সময় বেছে বেছে তৃণমূলকর্মীদের বাড়িতেও হামলার অভিযোগ উঠেছে বিজেপি কর্মীদের ওপর। খবর পেয়ে বড়জোড়া থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে আহত আট জন তৃণমূল কর্মীকে উদ্ধার করে বাঁকুড়া মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। যদিও বিজেপির তরফে এই অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে। ঘটনায় জড়িত সন্দেহে চারজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ঘটনার সঙ্গে আরও কারা যুক্ত রয়েছে সেবিষয়ে তদন্ত শুরু করা হয়েছে। তবে তৃণমূলের তরফে পাল্টা হুমকি দেওয়া হয়েছে এহেন আক্রমণ তারাও চুপচাপ মেনে নেবেন না। ফলে আবারও রাজনৈতিক হিংসার আভাষ থেকেই গেল।