পঞ্চায়েত নির্বাচনকে পাখির চোখ তকে বাঁকুড়া জেলা সফরে মুখ্যমন্ত্রী

0
641

সংবাদদাতা,বাঁকুড়াঃ- ২০২১ সালে রাজ্যে তৃতীয়বার তৃণমূল সরকার গঠনের পর আর বাঁকুড়া সফরে যাননি মুখ্যমন্ত্রী। এবার ২০২৩ সালের পঞ্চায়েত নির্বাচনকে সামনে রেখে দলীয় কর্মীদের মনোবল চাঙ্গা করতে আগামী ১ জুন বাঁকুড়া জেলা সফরে যাচ্ছেন তৃণমূল সুপ্রিমো। দলীয় সূত্রে খবর এই সফরে প্রশাসনিক বৈঠকে জেলার উন্নয়ন মূলক কাজের পর্যালোচনার পাশাপাশি দলের কর্মীদের নিয়ে বুথ ভিত্তিক কর্মিসভা করার কথা রয়েছে তাঁর।

রবিবার বাঁকুড়ার তৃণমূল ভবনে তারই প্রস্তুতি সভা করলেন বাঁকুড়া জেলা তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব । যেখানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্য তৃণমূল কংগ্রেস নেতা তথা তালডাংরা বিধানসভার প্রাক্তন তৃণমূল কংগ্রেসের বিধায়ক সমীর চক্রবর্তী সহ জেলার সমস্ত তৃণমূল বিধায়ক ও জেলার শীর্ষ স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব এবং ব্লক স্তরে তৃণমূল নেতৃত্বরা ।

এদিকে মুখ্যমন্ত্রীর সফরসূচী স্থির হতেই কর্মিসভার জন্য শনিবারই সভাস্থল নির্বাচনের কাজ শুরু করে দেয় জেলা তৃণমূল নেতৃত্ব। সভাস্থল হিসাবে বাঁকুড়া শহর সংলগ্ন গন্ধেশ্বরী নদী লাগোয়া সতীঘাট এলাকা ও তামলীবাঁধ ময়দান পরিদর্শন করেন জেলা তৃণমূল নেতৃত্ব। এই দলে ছিলেন রাজ্যের খাদ্য দফতরের রাষ্ট্রমন্ত্রী জ্যোৎস্না মান্ডি। তিনি বলেন,”মুখ্যমন্ত্রীর এই কর্মীসভায় জেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে পঞ্চাশ হাজার কর্মী যোগ দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা স্থির করা হয়েছে। সফরে এসে মুখ্যমন্ত্রী কী বার্তা দেন সেদিকেই তাকিয়ে রয়েছেন কর্মীরা।”

জেলা নেতৃত্বের পাশাপাশি তৎপরতা শুরু হয়েছে প্রশাসনিক মহলে। মুখ্যমন্ত্রীর সফরের আগে শনিবার সন্ধ্যায় জেলা পুলিশ সুপার বৈভব তেওয়ারি জঙ্গলমহল পরিদর্শন করেন এবং এলাকার বিভিন্ন থানাগুলিকে নিয়মিত নাকা চেকিং ও রাতে পুলিশি টহলদারি আরো জোরদার করার নির্দেশ দেন তিনি। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে মুখ্যমন্ত্রীর সফর ঘিরে জঙ্গলমহল এলাকাজুড়ে জারি থাকবে বাড়তি পুলিশি নজরদারি ।সব মিলিয়ে দীর্ঘদিন পর মুখ্যমন্ত্রীর সফর ঘিরে এখন জেলা জুড়ে তৎপরতা।

প্রসঙ্গত গত লোকসভা ও বিধানসভা ভোটে জেলায় তৃণমূলের ফল ভাল হয়নি। গত বিধানসভা নির্বাচনে জেলায় বারোটি বিধানসভা কেন্দ্রের মধ্যে আটটি বিধানসভা কেন্দ্রে পরাজিত হতে হয়েছে তৃণমূল কংগ্রেসকে। তার আগে, গত পঞ্চায়েত ভোটেই বিজেপি জেলার নানা পঞ্চায়েত ও পঞ্চায়েত সমিতিতে শাসক দলের সঙ্গে টক্কর দিয়েছিল। বেশ কিছু পঞ্চায়েত ও পঞ্চায়েত সমিতিতে সংখ্যাগরিষ্ঠতাও পেয়েছিল তারা। এই পরিস্থিতিতে, দলনেত্রীর কর্মিসভায় পঞ্চায়েত ভোটের পরিকল্পনার দিশা মিলবে বলে মনে করছে তৃণমূলের বড় অংশ। ওই সভা থেকেই প্রচারের সুর বেঁধে দেওয়া হবে বলে ধারণা জেলা নেতৃত্বের।

পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই বাঁকুড়া সফর অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক মহলের একাংশ । যদিও মুখ্যমন্ত্রীর এই সফরকে পাত্তা দিতে রাজি নয় বিরোধী পক্ষ। তাঁর এই সফরে জেলায় কোনো প্রভাব পড়বে না বলেই মনে করছেন তাঁরা ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here