জনসংযোগ বাড়াতে আদিবাসীদের বাড়িতে “মধ্যাহ্নভোজন” মুকুল রায় ও সৌমিত্র খাঁ-র

0
1498

সঞ্জীব মল্লিক, বাঁকুড়াঃ “সবার উপরে মানুষ সত্য, তাহার উপরে নাই” এই বার্তা নিয়ে এবং জাতিভেদপ্রথা দূরীকরণ ও জনসংযোগ বাড়াতে আদিবাসী পরিবারে খাওয়া-দাওয়া সারলেন বিজেপি নেতা মুকুল রায় ও বিষ্ণুপুরের বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ সহ এক গুচ্ছ জেলা ও রাজ্য স্তরের কর্মকর্তারা। রিতিমত মাটিতে আসন পেতে বসে কলাপাতায় সাজিয়ে তাঁদের পেট পুরে খাওয়ালেন আদিবাদী মায়েরা। বিষ্ণুপুর শহরের ১৮ নং ওয়ার্ডের আদিবাসী পাড়ায় কানন মূর্মুর বাড়ীতেই এই মধ্যাহ্ন ভোজনের আয়োজন করা হয়েছিল। আদিবাসী বাড়ীতে মুকুল রায়ের মতো পরিবারের সকলেই খুশী আচমকায় একসঙ্গে এহেন অতিথিদের উপস্থিতিতে। কী ছিল অতিথিদের মেনুতে। আদিবাসী পরিবারের রান্না ঘরে ঢুঁ একজন হেভিওয়েট এবং জনপ্রিয় নেতাকে অতিথি হিসেবে পেয়ে খুশী কানন মূর্মূ নিজেও। তিনি জানান, এটা আমার কাছে বড় পাওনা। মারতেই এবং তাদের সঙ্গে কথা বলতেই জানা গেল একেবারে বাঙালী মেনু। ভাত, ডাল, তরকারি, মাছের পদ আর চাটনি। আর এহেন জিভে জল আনা বিভিন্ন পদ কলাপাতায় তৃপ্তি করে খেলেন সকল অতিথিই। আচমকা আদিবাসী মহল্লায় উচ্চস্তরের বিজেপি নেতৃত্বদের উপস্থিতি এবং তাঁদের মধ্যাহ্নভোজন দেখতে ভীড় জমান বহু উৎসাহী মানুষজন। তবে বিজেপি নেতা মুকুল রায় এবং সাংসদ সৌমিত্র খাঁ-র আদিবাসী এলাকায় এহেন জনসংযোগ বৃদ্ধির কৌশল আখেরে রাজনৈতিক রণনীতি বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here