তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা, বোমাবাজি

0
1546

নিউজ ডেস্ক, এই বাংলায়ঃ আবারও তৃণমূল বিজেপির সংঘাত প্রকাশ্যে। লাউদোহা থানার অন্তর্গত জব্বরপল্লী এলাকায় ২০১১ সালের পর থেকে তৃণমূল কংগ্রেসের সদস্যরা সিন্ডিকেট অফিস চালাচ্ছে বলে অভিযোগ তোলে বিজেপি । বিজেপি নেতা নিত্যানন্দ গড়াইয়ের অভিযোগ, এলাকায় তৃণমূল চালিত সিন্ডিকেট অফিস থেকেই স্থানীয় কারখানাগুলিতে কর্মী নিয়োগ করা হয়, আর সেই কারণেই শ্রমিকরা ন্যায্য বেতন পান না। কারণ হিসেবে তিনি জানিয়েছেন প্রত্যেক মাসে কর্মীদের বেতন থেকে ৩০ টাকা করে কেটে নেওয়া হয়। ফলে সমস্যায় পড়েন গরিব শ্রমিকরা। এরই প্রতিবাদে রবিবার গরিব শ্রমিকদের পাশে দাঁড়িয়ে বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা ওই সিন্ডিকেট অফিসে তালা মেরে দেন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় লাউদোহা-ফরিদপুর থানার পুলিশ। পুলিশের সামনেই বিক্ষোভ দেখানোর পাশাপাশি সিন্ডিকেট রাজের প্রতিবাদে সামিল হন বিজেপি কর্মীরা। যদিও সিন্ডিকেট অফিসের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব। অন্যদিকে দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলাতেও তৃণমূল বিজেপি সংঘাতের জেরে উত্তেজনা ছড়ালো। জানা গেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার যাদবপুর লোকসভা কেন্দ্রের খুটিবেরিয়া বুথে বিজেপির জয়লাভের পর থেকেই এলাকায় বিভিন্ন সময়ে উত্তেজনা লেগেই রয়েছে। বিজেপি কর্মীদের হুমকি, এলাকায় নলকূপে পানীয় জল বন্ধ করে দেওয়া সহ বিভিন্ন ভাবে বিজেপি কর্মীদের হেনস্থা করা হচ্ছিল বলে অভিযোগ বিজেপির। অভিযোগ, গতকাল রাতে আচমকায় স্থানীয় তৃণমূল নেতা শশধর মাঝির নেতৃত্বে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতিরা বিজেপি কর্মী সমর্থকদের বাড়িতে হামলা চালায়। বাড়িতে বাড়িতে ঢুকে ভাঙচুর, মারধরের সঙ্গে সঙ্গে বোমাবাজিও চলে বলে অভিযোগ। তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষের খবর জানতে পেরে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় বারুইপুর থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী। পুলিশের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আসে।