‘শিক্ষা রত্ন’ পুরস্কারের দৌড়ে মুর্শিদাবাদ থেকে সেরার সেরা দৌড়ে ৪ শিক্ষক ও দুর্গাপুরের ডক্টর কালিমুল হক

0
1020

নিজস্ব সংবাদদাতা, মুর্শিদাবাদ:-বৃহস্পতিবার শিক্ষক দিবস। আর তার আগেই জেলা জুড়ে খুশির আবহ। কারণ সেরার সেরা দৌড়ে ৫ সেপ্টম্বর ওই দিন রাজ্যের মুখ্য মন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত থেকে নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে এক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে এবার শিক্ষা জগতের রাজ্য স্তরের সর্বোচ্চ পুরষ্কার “শিক্ষা রত্ন” পেতে চলেছেন মুর্শিদাবাদ চক্রের ১২ নম্বর কুতুবপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাহামুদাল হাসান মিঠু । রাজ্য সরকারের শিক্ষা দপ্তর মিঠু বাবুকে ওই পুরষ্কারের জন্য মনোনীত করেছেন। সব কিছু ঠিক থাকলে মাহামুদাল হাসান সহ রাজ্যের ২৩টি জেলা থেকে বাছাই করা সকল কে টপকে মোট ৪০ জন শিক্ষকের হাতে ওই পুরষ্কার উঠতে চলেছে । জানা যায় এ বছর জেলার প্রাথমিক ও উচ্চ বিদ্যালের মোট ৪ শিক্ষক ওই মনোনয়নে স্থান পেয়েছেন।শিক্ষা ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য রাজ্য সরকার প্রতি বছর শিক্ষক দিবসে “শিক্ষা রত্ন ”পুরষ্কার দেওয়ার রেওয়াজ চালু করেছেন ।প্রাথমিক , মাধ্যমিক ও মাদ্রাসা শিক্ষা ক্ষেত্রেও ওই পুরষ্কার দেওয়া হয় । শুধু পঠন পাঠন নয় , একটি শিক্ষা কেন্দ্রে শিক্ষা দেওয়ার পাশাপাশি শৈশবের কচিকাঁচা দের মধ্যে সামাজিক , পরিবেশ ও মানসিক বিকাশের উৎকর্ষতা লক্ষ করে ওই পুরষ্কারের জন্য উৎসাহী শিক্ষক কে মনোনীত করা হয় । সেই বিচারে এবার জেলার বহরমপুর কৃষ্ণ নাথ কলেজ স্কুলের শিক্ষক দীপঙ্কর রায় , বেলডাঙা নওপুকুরিয়া নতুনপাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক পান পিয়ারা খাতুন , জলঙ্গী কিশোর সংঘ দিয়াড় পাড়া প্রাথমিক বিদালয়ের শিক্ষক সমীর কুমার সরকার ও মুর্শিদাবাদ কুতুবপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক মাহামুদাল হাসান মিঠু কে নির্বাচিত করা হয়েছে । মুর্শিদাবাদ চক্রের অত্যন্ত ছোট্ট পরিসরের একটি বিদ্যালয় কুতুবপুর । জায়গার অভাব থাকলেও কাজের একাগ্রতার কারনে ওই বিদ্যালয় জেলায় এখন একটি পরিচিত নাম । কচিকাঁচাদের যোগসানের পাশাপাশি স্বয়ং শক্তি সম্পূর্ণ করে তুলতে নিয়মিত প্রশিক্ষণ দেওয়া হয় ক্যারাটের । হাইজিন ম্যান্টেন করে মিড ডে মিলেও রকমারি খাবার পরিবেশন করে শিশুর স্বাদে বৈচিত্র আনা হয় মরশুমের কথা চিন্তা করে ।আবার চাইল্ড ক্যাবিনেট কে গড়া হয়েছে শক্তিশালী করে । শিশু মনে ধারনা তৈরি করা হয়েছে তারাই আগামী দিনে দেশ পরিচালনা করবে । শুধু বিদ্যালয়ের মধ্যেই সিমাবদ্ধ না থেকে অভিভাবক ও স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে নীবিড় সম্পর্ক গড়ে তুলে পড়ুয়াদের বিভিন্ন সামাজিক ব্যাধি নিয়ে এলাকায় সচেতনতা বৃদ্ধি করতে বিদ্যালয় প্রশংসিত হয়েছে । স্বাভাবিক ভাবে চক্র স্তরে নির্মল বিদ্যালয় ও জেলা স্তরে শিশু মিত্র পুরষ্কার লাভ করেছে কুতুবপুর প্রাথমিক বিদ্যালয় । এহেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কবি মাহামুদাল হাসান এর আগে ইন্ডিয়ান সলিসিডরিটি কাউন্সিল থেকে সম্মানিত হয়েছেন ডঃ এ পি যে আব্দুল কালাম এডুকেশান এক্সিলেন্ট এওয়ার্ড পেয়ে । এবার শিক্ষা ক্ষেত্রে রাজ্যের সরবচ্চ পুরষ্কার শিক্ষা রত্ন পাওয়ার খবর পেয়ে বুধবার সন্ধ্যায় বলেন ,” এই সম্মান আমার একার নয় ,এটি বিদ্যালয়ের মুখ উজ্জ্বল করল । তাছাড়া আমার সহকর্মী পড়ুয়া ও অভিভাবকদের সকলের সহযোগিতার ফল শিক্ষা রত্ন লাভ ।” শিক্ষক দিবসের দিনেই দুর্গাপুরের নেপালি পাড়া হিন্দি হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক ডক্টর কালিমুল হকের হাতে তুলে দিলেন ‘শিক্ষা রত্ন’ পুরস্কার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here