সারাদিনে শুধু একটা ভালো কাজ, বদলে মিলবে একবেলা ভরপেট খাওয়া

0
308

এই বাংলায় ওয়েব ডেস্কঃ- টাকা নয়, সারাদিনে করতে হবে কোনও ভাল কাজ। আর তার বদলেই মিলবে একবেলা ভরপেট খাওয়া। হ্যাঁ ঠিকই শুনেছেন। যদি কারও কাছে খাবারের পয়সা না থাকে, তাহলে শুধু ভালো কোনও কাজ করতে হবে। ব্যাস শর্ত শুধু এইটুকুই। ভালো কাজের বদলে খাবার। বাংলাদেশের ‘ইয়ুথ ফর বাংলাদেশ’ নামের এক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন অভিনব এই উদ্যোগ নিয়েছে। যার ফলে একদিকে যেমন অসামাজিক কাজকর্ম কমবে অন্যদিকে তেমনি দুঃস্থদের মুখে তুলে দেওয়া যাবে একবেলা অন্ন।

প্রসঙ্গত করোনার কারণে এক ধাক্কায় কাজ হারিয়েছে বহু মানুষ। আর্থিক সংকটে এক বেলার অন্ন জোগাতে হিমসিম খাচ্ছে সাধারণ মানুষ। ফলে ক্রমশ বাড়ছে চুরি, ছিনতাই সহ নানা অসামাজিক কাজকর্ম। পেটের ভাত জোগাতে অনেকেই অসৎ পথ বেছে নিচ্ছে। আর এই অসৎ পথে যাওয়ার প্রবণতাকে রুখতেই এই অভিনব উদ্যোগ ‘ইয়ুথ ফর বাংলাদেশ’ নামের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনটির।

প্রান্তিক মানুষের পেটে একবেলার ভাত যোগাতে বাংলাদেশর কমলাপুর রেল স্টেশনের কাছে তৈরি হয়েছে এই হোটেল। দুপুর হলেই রাস্তায় ভিড় জমায় মানুষ। সংগঠনের সদস্য তথা স্বেচ্ছা সেবকরা খাতা পেন নিয়ে এগিয়ে যান ভিড় জমানোর মানুষের কাছে। প্রত্যেককে শুধু দুটি প্রশ্নের উত্তর দিতে হয়। ১. আপনার নাম কি?২. আপনি আজ কী ভাল কাজ করেছেন? তারপরেই প্রত্যেকের হাতে তুলে দেওয়া হবে খাবারের প্যাকেট। আজব এই হোটেলের নাম ‘ভালো কাজের হোটেল’।

কি ভালো কাজ করলে পাওয়া যায় খাবার? তার জন্য বিচার করার কেউ নেই। তার বিচার নিজেকেই করতে হবে। জানা গেছে ‘ভালো কাজের হোটেল’এ খেতে আসা মানুষজনদের মধ্যে কেউ জানিয়েছেন তিনি রাস্তায় দুর্ঘটনার হাত থেকে বাঁচিয়েছেন কুকুর শাবককে। কেউ আবার কোন অন্ধ মানুষকে রাস্তা পারাপারে সাহায্য় করেছেন। কোনও রিক্সা চালক অসুস্থ অসহায় যাত্রীকে বিনামূল্যে হাসপাতালে পৌঁছে দিয়েছেন। আর যারা সারাদিনে কোনও ভালো কাজ করার কোনও সুযোগ পাননি? তাদের মিলেব না খাবার? তাদের জন্য ব্যবস্থা রয়েছে ধারের। হ্যাঁ, ‘ভালো কাজের হোটেল’-এ ধারের ব্যবস্থাও রয়েছে। পরের দিন দুটো ভাল কাজ করে শোধ দিলেই হবে।

মানুষের বিবেককে জাগ্রত করার এ এক অভিনব পন্থা। এই পদক্ষেপ সত্যিই প্রশংসনীয়। আর এই অভিনব উদ্যোগের মাধ্যমে বহু মানুষের প্রশংসা কুড়াচ্ছে বাংলাদেশের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনটি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here