বিমান বসুর নেতৃত্বে সোনামুখীতে এন আর সি ও সি এ এ এর বিরুদ্ধে মহা মিছিল

0
370

সংবাদদাতা, বাঁকুড়াঃ- ‘দেশের প্রধানমন্ত্রী ডাঁহা মিথ্যা কথা বলছেন। যা কখনোই কল্পনা করা যায়না’। এই ভাষাতেই শনিবার বাঁকুড়ার সোনামুখীতে সিপিএমের মহা মিছিল শেষে এক সভায় এই অভিযোগ করেন বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু। তিনি বলেন, লোকসভা রাজ্য সভায় যখন ওনার ‘বন্ধু’ অমিত শাহ্ জনবিরোধী বিল পাশ করাচ্ছেন তখন উনি নিজে উপস্থিত থাকছেন।

এদিন পরে মিছিল ও জনসভা শেষে সাংবাদিকের মুখোমুখি হয়ে রাজ্যের শাসক দলকেও এক হাত নেন বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান। বিমান বসু সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘শুধু হাঁটলেই হবেনা’। সিএএ, সিএবি বিল পাশের সময় কেন তৃণমূল সাংসদরা রাজ্যসভা ও লোকসভায় উপস্থিত ছিলেননা সে নিয়েই তিনি প্রশ্ন তোলেন। তিনি আরো বলেন, কেন আগামী ৮ জানুয়ারী ভারত বন্ধেকে তারা সমর্থন করবেন সেবিষয়ে জানাতেই এই মহামিছিল বলে তিনি জানান।

এদিন সোনামুখী ব্লকের ১০ টি অঞ্চল এবং সোনামুখী শহরের ১৫ টি ওয়ার্ডের দলীয় কর্মীদের নিয়ে সোনামুখী শহরে মিছিল ও সভা নেতৃত্ব দেন সিপিআইএম নেতা বিমান বসু। আগামী ৮ই জানুয়ারি ধর্মঘট কে সফল করতে এই কর্মসূচি বলেই জানান বিমান বসু। এদিন সভায় বক্তব্য এনআরসি প্রসঙ্গে কৃষক শ্রমিক ক্ষেত মজুরদের বাঁচতে হলে লাল ঝান্ডা কে ঐক্যবদ্ধ করার আহ্বান করলেন বিমান বসু। এদিনের সভায় এনআরসির বিরোধিতা করে বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরেন বিমান বসু। এনআরসি নিয়ে মমতার বিরুদ্ধেও প্রশ্ন তুলে বিমান বসু বলেন লোকসভা এবং রাজ্যসভায় কেন তৃণমূলের সাংসদরা বিরোধিতা করেননি? এদিন সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বিমান বসু নাগরিকত্ব আইন নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বোঝাপড়ার রাজনীতি করছেন বলেও কটাক্ষ করেন।

সিপিএমের মিছিল কে কটাক্ষ করে সোনামুখী পৌরসভার চেয়ারম্যান সুরজিৎ মুখোপাধ্যায় বলেন, মহা মিছিল তো মানুষের সমর্থন নিয়ে হয়, মানুষ যদি সাথে থাকে তাকে আমরা মহা মিছিল বলা হয়। কিছু ভাড়া করে বাজনা ওয়ালা নিয়ে এসে আর কিছু পেইড স্টাফকে নিয়ে রাস্তায় হাঁটলে সেটা মহা মিছিল হয় না। বিমান ছিলেন আর সিপিএমের কিছু পেট স্টাফ ছিল আর কিছু বাজনা বলেছিল এ মিছিলে। আমাদের তৃণমূল ছাত্র পরিষদের ছেলেরা প্রতিদিনই এমন মিছিল করছে। কাজেই এই মিছিল নিয়ে আমার বলার কিছু নেই। তিনি আরও বলেন, সিপিএম পার্টি টা অনেক আগেই বিজেপির কাছে বিক্রি হয়ে গেছে। দিনের বেলায় বাম আর রাতের বেলায় রাম মানুষ ধরে ফেলেছে। বামপন্থীদের সঙ্গে মানুষ আর নেই। বামপন্থী দের থেকে মানুষ আজ সরে গেছে। পশ্চিমবাংলার কংগ্রেস সিপিএম বিজেপি এক ছাতার তলায়। মানুষ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাথে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মানুষের পাশে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here