শিল্পাঞ্চলে বিজেপি’র শ্রমিক সংগঠনের শ্রমিকরা বিধানসভা নির্বাচনে কোমরবেঁধে নামতে চলেছে

0
558

অমল মাজি, দুর্গাপুর :- পশ্চিম বর্ধমান জেলায় আসানসোল দুর্গাপুর শিল্পাঞ্চলে মূলত শ্রমিকদের প্রভাব বেশি | আর সেক্ষেত্রে বিধানসভা নির্বাচনে শিল্পাঞ্চলের প্রার্থীদের ভাগ্য নির্ধারিত হয় শ্রমিকদের ভোটে | অর্থ্যাৎ যে রাজনৈতিক দলের সমর্থিত ট্রেড ইউনিয়ন যত বেশি শক্তিশালী সেই ট্রেড ইউনিয়নের নেতাদের প্রভাবও বেশি | সেই বাম আমল থেকেই এই ট্রেডিশন চলে আসছে | তাই দেখা গেছে, প্রতিটি বিধানসভা নির্বাচনে সংশ্লিষ্ট রাজনৈতিক দলের প্রার্থীদের ভাগ্য নির্ধারিত হয় শ্রমিকদের ভোটে | এই কারণেই শিল্পাঞ্চলে সাধারণ রাজনৈজিক নেতাদের চেয়ে ট্রেড ইউনিয়ন নেতাদের গুরুত্ব বেশি | সেই বাম আমল থেকেই দেখা গেছে, প্রতিটি বিধানসভা নির্বাচনে প্রার্থী বাছাইয়ের ক্ষেত্রে ট্রেড উনিয়নের বা শ্রমিক নেতাদের প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে |

সেইদিকে লক্ষ্য রেখে আগামী বিধানসভা নির্বাচনে শ্রমিকদেরকে পাশে নিয়ে শিল্পাঞ্চলে বৈতরণী পার হতে বিজেপি তাদের ট্রেড ইউনিয়ন “ভারতীয় জনতা মজদুর ট্রেড ইউনিয়ন”(বিজেএমটিইউ)কে মাঠে নামাচ্ছে | পশ্চিম বর্ধমান জেলার বিজেএমটিইউ ‘র সভাপতি গৌতম ব্যানার্জির বক্তব্য, পশ্চিমবঙ্গে শিল্পস্বার্থ পুনর্গঠন ও শ্রমজীবীদের অধিকার পুনর্প্রতিষ্ঠা করার লক্ষ্যে বিজেএমটিইউ’র রাজ্য সভাপতি শ্রী রাকেশ সিং-এর নেতৃত্বের উপর ভরসা রেখে শ্রমজীবীরা দলে দলে এই ট্রেড ইউনিয়নের ছাতার তলায় সমবেত হচ্ছেন |

একদিকে যখন পশ্চিম বর্ধমান জেলা তথা সমগ্র শিল্পাঞ্চলে শাসক দলের ট্রেড ইউনিয়নের শ্রম আইন বিরোধী এবং শ্রমিক বিরোধী কায়েমী স্বার্থন্বেষী নেতারা শিল্পস্বার্থকে বিসর্জন দেওয়ার সাথে সাথে শ্রমিকস্বার্থকে বিসর্জন দিয়েছেন | শিল্পাঞ্চলে শ্রমিকদের স্বার্থ সুরক্ষা না করে বর্তমান সরকার ট্রেড ইউনিয়ন ভেঙে দিয়ে শ্রমিকদের সাথে প্রবঞ্চনা করেছে | পাশাপাশি অন্যান্য ট্ৰেড ইউনিয়নগুলির নিষ্ক্রিয়তায় শিল্পাঞ্চলের শ্রমিক শ্রেণীকে আশাহত করেছে | গত ১০ বছরে আমাদের রাজ্যে কোনও শ্রমিক দিবস তৈরী না হওয়ায় রাজ্যের প্রচুর বেকার কাজের খোঁজে অন্য রাজ্যে চলে গেছে এবং এখনো চলে যাচ্ছে |

গৌতমবাবুর বক্তব্য, এমন করুণ পরিস্থিতিতে শ্রমিকদের পাশে দাড়িঁয়ে আমাদের বিজেএমটিইউ-র দাবি সমকাজে সমবেতন নীতি, বেতন কাঠামো কার্যকর করা | স্থানীয় বেকার যুবকদের চাকরিতে অগ্রাধিকার দেওয়া | কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের মহার্ঘভাতার বৈষম্য দূর করা |
আসানসোল দুর্গাপুর শিল্পাঞ্চলের প্রতিটি কারখানা, খনি ও অসংগঠিত ক্ষেত্রে সুস্থ ট্রেড ইউনিয়ন গঠনের মাধ্যমে শ্রমিক আন্দোলনকে জোরদার করা |

শিল্পের প্রতিটি শ্রমিককে পিএফ এবং ইএসআই আওতায় আনার পাশাপাশি দমবন্ধ পরিস্থিতি থেকে মুক্ত হয়ে, শ্রমিক স্বার্থ সুরক্ষা ও অধিকারকে সুপ্রতিষ্ঠিত করার জন্য বিজেএমটিইউ’র পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সভাপতি শ্রী রাকেশ সিং-এর বলিষ্ঠ নেতৃত্বে দলে দলে যোগ দিয়ে শ্রমিকরা সদস্যপদ গ্রহণ করছেন এবং আগামী বিধানসভা নির্বাচনে মুখ্য ভূমিকা পালন করতে প্রস্তুত |

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here