রাজ্যজুড়ে বিজেপি-তৃণমূল সংঘর্ষ, ধারালো অস্ত্রের কোপে আহত বিজেপি কর্মী

0
1248

নিউজ ডেস্ক, এই বাংলায়ঃ ভোট পরবর্তী হিংসা থেমেও থামছে না বাংলায়। ভোট এবং ভোটের ফলাফলের পর থেকে বিজেপি-তৃণমূল সংঘর্ষে আহত হয়েছেন সুশোভন দত্ত নামে এক বিজেপি কর্মী। ঘটনাটি ঘটেছে বাঁকুড়ার পাত্রসায়র থানার বেলুট গ্রামে । বেলুট-রসুলপুর গ্রামপঞ্চায়েতের তৃণমূলের প্রধান তাপস বাড়ির বিরুদ্ধে মারধরের অভিযোগ উঠেছে। আক্রান্তে অভিযোগ, প্রতিদিনের মতো শুক্রবার সকালে দোকান খুলতেই তাপস বাড়ির নেতৃত্বে একদল তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতী তার উপর হামলা চালায় এবং বন্দুকের বাট ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে। ধারালো অস্ত্রের কোপে তার ব্যাপক ভাবে হাত কেটে যায়। তার দোকানে ভাঙচুর এবং লুটপাট করে বলেও অভিযো।গ এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য তৈরী হয় । আহত বিজেপি কর্মীকে প্রথমে পাত্রসায়ের প্রথিমিক হাসপাতালে পরে তাকে বাঁকুড়া সম্মিলনী মেডিকেল কলেজে স্থানানস্তরিত করা হয়। আবার দক্ষিণ ২৪ পরগনার ক্যানিং থানা এলাকায় বিজেপি করার অপরাধে ঘর থেকে টেনে বার করে প্রকাশ্যে দিবালোকে ব্লক মহিলা মোর্চা নেত্রীকে মারধরের অভিযোগ। দিদিকে বাঁচাতে গিয়ে আক্রান্ত হল ভাইও। ঘটনা বাসন্তী থানার উত্তর মোকামবেড়িয়া গ্রামের। আহতদের নাম রিঙ্কু সরদার (২৭) ও পিন্টু সরদার (২২)। জানা গেছে বাসন্তী ব্লকের বিজেপি মহিলা মোর্চার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে রিঙ্কু সরদারের হাতে। ভোটের সময় সক্রিয় ভাবে ভোটের প্রচারেও বিজেপির হয়ে ভোট প্রচারে দাঁড়িয়েছিলেন তিনি। অভিযোগ এই কারণেই তৃণমূল আশ্রিত দুস্কৃতিদের হাতে এভাবে আক্রান্ত হতে হল দুজনকে। ঘটনায় বাসন্তী থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।