গুসকরায় ত‍ৃণমূল ছাত্র পরিষদের রক্তদান শিবির

0
282

জ্যোতি প্রকাশ মুখার্জ্জী,গুসকরাঃ– করোনা জনিত নিষেধাজ্ঞা ও খানিকটা আতঙ্কের কারণে নিয়মিত রক্তদান শিবিরের আয়োজন করা সম্ভব হচ্ছেনা। এরফলে বিভিন্ন ব্লাড ব্যাংকে মুমূর্ষু রুগীদের জন্য প্রয়োজনীয় রক্তের অভাব দেখা যাচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে রক্তের চাহিদা মেটাতে এগিয়ে এল গুসকরা শহর তৃণমূল ছাত্র পরিষদ ।


১৯৯৩ সাল থেকেই ক্যালেণ্ডারের পাতার ২১ শে জুলাই তারিখটি তৎকালীন যুব কংগ্রেস সভানেত্রী তথা বর্তমান তৃণমূল নেত্রী মমতা ব্যানার্জ্জীর রাজনৈতিক জীবনের এক গুরুত্বপূর্ণ দিন। সেই দিনটি স্মরণীয় করে রাখতে গুসকরা শহর তৃণমূল ছাত্র পরিষদের উদ্যোগে এবং গুসকরা শহর তৃণমূল কংগ্রেসের সক্রিয় সহযোগিতায় শিরিষতলা সংলগ্ন বিদ্যাসাগর হলে একটি রক্তদান শিবির আয়োজিত হয়। বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের ব্লাড ব্যাংক শাখা এই শিবির থেকে প্রথমে ৫০ ইউনিট রক্ত সংগ্রহ করলেও শেষ পর্যন্ত ছাত্রদের অনুরোধে অতিরিক্ত ৫ ইউনিট রক্ত সংগ্রহ করে। আরও অনেক উৎসাহদাতা রক্তদানের জন্য উপস্থিত থাকলেও নিষেধাজ্ঞা জনিত কারণে সেটা সম্ভব হয়নি। সংগৃহীত রক্ত ব্লাড ব্যাংক কর্তৃপক্ষের হাতে তুলে দেওয়া হয়। প্রয়োজনের তাগিদে মাত্র কয়েকদিন আগে শহরের বুকে তৃণমূলের পক্ষ থেকে আরও দুটি রক্তদান শিবির আয়োজিত হয়েছিল। স্বাভাবিক কারণেই তৃণমূল ছাত্র পরিষদের পক্ষ থেকে আয়োজিত এই শিবিরের সাফল্য নিয়ে অনেকের মনে সংশয় থাকলেও আগ্রহী রক্তদাতাদের উপস্থিতি দেখে সকলেই বিষ্মিত হন।


রক্তদাতাদের উৎসাহ দেওয়ার জন্য শিবিরে উপস্থিত ছিলেন আউসগ্রাম ২ নং ব্লক সভাপতি রামকৃষ্ণ ঘোষ, অরূপ সরকার, প্রশান্ত গোস্বামী, দেবাঙ্কুর চ্যাটার্জ্জী, তন্ময় গোস্বামী, দেবব্রত শ্যাম, রত্না গোস্বামী, গণেশ পাঁজা, আইটি সেলের রবিনাথ আঁকুড়ে, জেলা তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সভাপতি সাদ্দাম হোসেন সহ শহর সভাপতি কুশল মুখার্জ্জী ও আরও অনেকে। রক্তদাতাদের দিকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেয় শহর তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সভাপতি সৌম্যদীপ চ্যাটার্জ্জী ছাড়াও সৌভিক, সাহেব, হেমন্ত, মলি, রিয়া, রাণী প্রমুখ তৃণমূল ছাত্র পরিষদের কর্মীরা। এর আগে তৃণমূলের ও ছাত্র পরিষদের পতাকা উত্তোলন করেন শহর সভাপতি ও তৃণমূল ছাত্র পরিষদের জেলা সভাপতি। পরে ২১ শে জুলাইয়ের শহীদদের স্মৃতির উদ্দেশ্যে শহীদ বেদীতে পুষ্পদান করেন উপস্থিত তৃণমূল নেতা-কর্মীরা। বর্তমান পরিস্থিতিতে এই রক্তদান শিবিরের আয়োজন করার জন্য জেলা তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সভাপতি উদ্যোক্তাদের ধন্যবাদ জানান এবং ভবিষ্যতেও সমস্ত রকম সহযোগিতার আশ্বাস দেন। শিবিরটিকে সফল করতে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেওয়ার জন্য সৌম্যদীপ শহর সভাপতি কুশল মুখার্জ্জী সহ শহরের সমস্ত স্তরের তৃণমূল নেতা-কর্মীদের ধন্যবাদ জানান।


অন্যদিকে কুশল বাবু বলেন – আজকের ছাত্র তথা যুব সমাজ আমাদের দলের ভবিষ্যত। আমাদের নেত্রীও তাদের দিকে বাড়তি নজর দিয়েছেন। তাই এই বাচ্চা বাচ্চা ছেলমেয়েগুলি দ্বারা আয়োজিত শিবিরের সাফল্যের জন্য আমরা তাদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছি। আগামী দিনেও তাদের পাশে থাকব।

        

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here