পাঁচতারা হোটেল ফরচুন পার্ক ‘পুষ্পাঞ্জলী’ তে স্বেচ্ছায় রক্তদান শিবির

0
394

নিজস্ব সংবাদদাতা, দুর্গাপুরঃ- প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বাড়ছে দিন দিন। একই সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যু। এখনো পর্যন্ত সারা দেশে করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে মারা গেছেন হাজার হাজার মানুষ । পশ্চিমবঙ্গেও মারা গেছেন বহু জন। আর সংক্রমিত হাজার হাজার মানুষ । বিশ্বের সব গণমাধ্যম প্রতিমুহূর্তে করোনাভাইরাসের খবর প্রকাশ করে যাচ্ছে। ফেসবুক, হোয়াটস্যাপ সহ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও করোনা ভাইরাসের খবরে আগ্রহ মানুষের। অর্থাৎ, এই সময়ে করোনা ভাইরাস মানুষের চিন্তার প্রধান বিষয়।

করোনাকালের এই সময়ে রক্তের আকাল দেখা দিচ্ছে গোটা রাজ্য জুড়ে। বহু করোণা আক্রান্ত রোগীর রক্ত সংকটের ভুগছেন। হাসপাতাল ,নার্সিং হোম গুলিতে পর্যাপ্ত পরিমাণে রক্ত মজুদ নেই তাই বহু ক্ষেত্রে রক্ত ঠিক সময় না পাওয়ায় মারা যাচ্ছেন বহু করোনা আক্রান্ত রোগী। এক দিকে করোনার থাবা চলছে ও অন্যদিকে গভীর রক্ত সংকট চলছে। এমতবস্থায় গভীর রক্ত সংকট কাটাতে দুর্গাপুর ব্লাড ডোনার্স কউন্সিলের আবেদনে সাড়া দিয়ে এগিয়ে এল দুর্গাপুর সিটি সেন্টার অবস্থিত আই টি সি গ্রুপের অভিজাত পাঁচতারা হোটেল ফরচুন পার্ক পুষ্পাঞ্জলী। এই স্বেচ্ছা রক্তদান শিবির আনুষ্ঠানিক ভাবে শুরু করেন হোটেলের ডাইরেক্টর সুরজিত ঘোষ, জেনারেল ম্যানেজার সঞ্জীব কুমার, ডাক্তার শ্বাশতী সেনগুপ্ত, তারক মহাপাত্র (ফ্রন্ট অফিস ম্যানেজার) মধুসূদন পারিদা (এইচ আর) ও অন্য অতিথী বর্গের উপস্থিতে। দুর্গাপুর ব্লাড ডোনার্স কাউন্সিলের পক্ষে থেকে উপস্থিত ছিলেন বিশ্বনাথ চট্টোপাধ্যায়, ধনঞ্জয় মান, পার্থ প্র্তীম গুপ্ত, মধুমিতা মান, পার্থ সারথী দাশগুপ্ত, আফতাব হোসেন, কাকলী বিশ্বাস, প্রবীর রায়,ও সনত ব্যানার্জী। এই স্বেচ্ছা রক্তদান শিবিরে মোট ২১ জন পুরুষ ও ২ জন, মহিলা রক্তদান করেন। প্রথম বার রক্তদান করেন ৯ জন। সকলেই মাস্ক ও শারীরিক দুরত্ব বজায় রেখে রক্তদান করেন। রক্ত সংগ্রহ করল আসানসোল জেলা হসপিটাল ব্লাড সেন্টার। সকল রক্তদাতাদের সর্টিফিকেট তুলে দিলেন উপস্থিত অতিথী বর্গরা।উপস্থিত সকল রক্তদাতা, অতিথী বর্গ কে আন্তরিক কৃতজ্ঞতা, ধন্যবাদ ও অভিনন্দন জানিয়েছেন ডিবিডিসর পক্ষ থেকে সাধারণ সম্পাদক সজল বোস।

যদি নাও কোভিড ভ্যাকসিন
তার আগে রক্তদানে ফোটাও পিন।

এ দিন ডিবিডিসর সাধারণ সম্পাদক সজল বোস, আবেদন করে বলেন, “সকল দুর্গাপুর ও জেলাবাসী এগিয়ে আসুন রক্তদানে। মে ,জুন ও জুলাই মাসে গ্রীষ্মকালীন রক্ত সংকট মোচনে রক্তদান শিবির করুন। সাহায্যের জন্য আপনার পাশে থাকবে দুর্গাপুর ব্লাড ডোনার্স কউন্সিল।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here