৬৮,৫০০ ইসিএলে আর ডিএসপির বোনাস সাড়ে ১৬ হাজার

0
996

বিশেষ প্রতিনিধি, দুর্গাপুরঃ- ইস্পাত কর্মীদের চেয়ে পাঁচগুন বেশি পুজো বোনাস জুটলো খনি শ্রমিকদের ভাগ্যে। করোনা আবহে এবছর কার্যত বোনাস না দেওয়ার পরিকল্পনা ছিল রাষ্ট্রায়ত্ত সেইল এবং কোল ইন্ডিয়ার। তবে শ্রমিক-কর্চারীদের যৌথ মঞ্চের দাবির কাছে শেষ পর্যন্ত নতি স্বীকার করতে বাধ্য হল কেন্দ্র সরকারের দুই সংস্থা।

দুর্গাপুর ইস্পাত কারখানা (ডি.এস.পি)তে বোনাস ১৬,৫০০ টাকা করে। মিশ্র ইস্পাত কারখানা (এ.এস.পি)তে বোনাস হচ্ছে ১৪,৫০০টাকা করে। সেইলের চাষনালা,জিৎপুর,রামনগর কয়লাখনির শ্রমিকেরা একং লৌহ আকরিক খাদানের শ্রমিকেরা ১৬,৫০০টাকা করে বোনাস পাবেন। তবে লোকসানে চলা মিশ্র ইস্পাত, সালেম ও ভদ্রাবতী ইস্পাতের শ্রমিকেরা ১৪,৫০০ টাকা করে পাবেন।

রাষ্ট্রায়াত্ত কোল ইন্ডিয়ার ইস্টার্ন কোল্ডফিল্ডস (ই.সি.এল) ‘র শ্রমিক কর্মচারীদের পুজোর বোনাস অবশ্য টেক্কা দিয়েছে অন্যান্য সংস্থাদের। ইসিএলের কর্মীরা বোনাস পাচ্ছেন ৬৮,৫০০টাকা করে। যার জন্য সংস্থার ১৯০ কোটি টাকা ব্যায় হচ্ছে।

শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টা পর্যন্ত ন্যাশনাল জয়েন্ট কমিটি ফর স্টীলের নেতৃত্বের সাথে টানা বৈঠক হয় সেইল কর্তৃপক্ষের। স্টীল ওয়ার্কার্স ফেডারেশনের নেতা বিশ্বরূপ ব্যানার্জী, ললিত মিশ্র সিটুর পক্ষ থেকে বৈঠকে জোর সওয়াল করেন বোনাসের পক্ষে। বিশ্বরূপ বলেন, “সেইল গতবারের হারেই বোনাস দিতে চাইছিল। একতরফা ভাবে চুক্তিপত্র পাঠিয়ে দিয়েছিল। কোনো শ্রমিক সংগঠনই তা মানেনি। তারপরই যৌথমঞ্চের চাপের কাছে মাথা নোয়ালো সেইল।”

একই ছবি ছিল ইসিএলে। সিটুর সভাপতি বংশগোপাল চৌধুরী বলেন, “এই বোনাস আদায় আসলে শ্রমিক সংগঠনগুলির যৌথ লড়াই-আন্দোলনের ফসল।”

শেষ পর্যন্ত রাষ্ট্রায় ত্ত সংস্থাগুলিতে বোনাস হলেও, এবছর করোনার জেরে ব্যবসা-বাণিজ্য অবশ্য জমলনা তেমন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here