বালকের অস্বাভাবিক মৃত্যু, শ্মশান থেকে দেহ এনে ময়না তদন্তে পাঠালো পুলিশ

0
742

সংবাদদাতা, পান্ডবেস্বর:- বালকের অস্বাভাবিক মৃত্যু ঘিরে রহস্য পান্ডবেস্বরে। শ্মশান থেকে দেহ এনে ময়না তদন্তে পাঠালো পুলিশ। প্রায় বছর বারও আগে পশ্চিম বর্ধমানের দহোমানি গ্রামের পূর্ণিমার বিয়ে হয় পান্ডবেস্বরের প্রকাশ পালের সাথে, তাদের দীর্ঘ বিবাহিত জীবন যে খুব সুখের ছিলনা সেকথা স্বীকার করেন পূর্ণিমার বাবা গণেশ দাস। গণেশ বাবু এও জানান তাদের জামাই প্রকাশ হামেশাই তার মেয়ের ওপর অত্যাচার করত। মৃত বালক সূর্য্য পালের(১০) দাদু গণেশ দাস বলেন তাদের নাতি ছোট থেকেই একটা রোগের স্বীকার। তার কথায় এবারের দুর্গা পুজোয় তাদের মেয়ে বাপের বাড়িতে এসে তাদের সাংসারীক অশান্তির কথা জানান। পূর্ণিমা বাপের বাড়িতে থাকা কালীন, তাদের নাতি সূর্য্য মারা যাবার কথা তারা প্রতিবেশী মারফৎ শুনতে পান এবং তড়িঘড়ি পান্ডবেস্বর এসে জানতে পারেন, তাদের নাতিকে দাহ করার জন্য শ্মশানে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।
মেয়ের বাড়ীর লোকের অভিযোগ তাদের না জানিয়ে তাদের নাতিকে শ্মশানে কেন নিয়ে গেল মৃত বালক সূর্য্য র বাবা প্রকাশ।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায় প্রকাশ পাল পান্ডবেস্বর এলাকার তৃণমূলের প্রাক্তন পঞ্চায়েত সদস্য ছিল।
মেয়ের বাড়ীর মৌখিক অভিযোগের ভিত্তিতে তৎপর পান্ডবেস্বর থানার পুলিশ মৃতদেহ শ্মশান থেকে উদ্ধার করে ময়না তদন্তে পাঠায়। অভিযুক্ত প্রকাশ পাল কে জিজ্ঞাসা বাদের জন্যে আটক করা হয়। যদিও প্রকাশ পালের দাদা রবিন পাল তার ভাইয়ের বিরুদ্ধে ওঠা সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তার মতে তার ভাইপো অর্থাৎ সূর্য্য পাল হৃদ রোগে আক্রান্ত হয়েই মারা গেছে। বালকের মৃত্যুর কারণ নিয়ে রহস্যের দানা বাঁধায় সম্পূর্ণ ঘটনার তদন্তে নেমেছে পান্ডবেস্বর থানার পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here