বাসের বেপরোয়া গতিতে রাস্তার ইলেকট্রিক পোলে ধাক্কায় ধর থেকে মুন্ডু ছিন্ন হল যাত্রীর

0
683

নিজস্ব সিংবাদদাতা, জিয়াগঞ্জ :- মুহূর্তের মধ্যে সব শেষ। ঘটনার বীভৎসতায় চমকে উঠলেন খোদ পুলিশ কর্মী থেকে আম জনতা। একটা আওয়াজের পরেই রাস্তার উপর চলন্ত বাসের জানালা থেকে এসে পড়ল এক মহিলার আস্ত একটা মুণ্ড। ততক্ষনে রক্তে ভেসে গিয়েছে কালো পিচের রাস্তা। দ্রুত বেপরোয়া গতিতে চলা বাসের জানালা দিয়ে মাথা বের করে বমি করতে গিয়ে পাশের ইলেকট্রিক পোলের ধাক্কায় ধর থেকে মুণ্ড ছিন্ন হয়েই এই ভাবেই মৃত্যূ হল এক ফল বিক্রেতা গৃহবধূর। নাম ভানু মণ্ডল(২৯) ঘটনাটি ঘটে মুর্শিদাবাদ থানার নকুরতলা মোড় এলাকায়। এই ঘটনায় ব্যাপক উত্তেজনা সৃষ্টি হলে স্থানীয় বাসিন্দারা রাস্তা আটকে ক্ষোভ দেখাতে শুরু করে। সুযোগ বুঝে পালিয়ে যায় গাড়ীর চালক ও তার খালাসী। লালবাগ সদর হাসপাতলে গৃহবধূর দেহের ময়না তদন্তের জন্য দেহ নিয়ে আনা হয়। খবর পেয়েই মৃতার দেহ সনাক্ত করেন তার বাবা রবি মণ্ডল। শেষ পাওয়া খবরে তাদের কোন খোঁজ মেলেনি বলেই পুলিশ জানায়। এই ব্যাপারে মুর্শিদাবাদ থানার আইসি শ্যামল বিশ্বাস বলেন,”ওই দুর্ঘটনাগ্রস্থ বাসটি উদ্ধার করে আনা হয়েছে থানায়। চালক ও খালাসির খোঁজ চলছে”। স্থানীয় ও পুলিশ সূত্র থেকে জানা যায়। জিয়াগঞ্জের বিল কান্দি কলোনীর বাসিন্দা ওই গৃহবধূ তার স্বামী সাথে সাংসারিক বিবাদের জেরে সম্প্রতি তার বাবার বাড়িতেই থাকত। দিন যাপনের জন্য বাড়ী থেকে প্রায় ১০কিলোমিটার দূরে লালবাগ সদর হাসপাতলের পাশে ফলের দোকান খুলে বসে। প্রতিদিনের মত এইদিনও তিনি(ভানু) দোকানে যাবার জন্য জিয়াগঞ্জ থেকে লালবাগে আসার জন্য জিয়াগঞ্জ-আসানসোল গামী একটি বেসরকারি বাসে উঠে বসে। বাসের যাত্রীরা জানান, লালবাগ ঢোকার মুখে ওই ফল বিক্রেতা গৃহবধূর আচমকা শরীর খারাপ করতে শুরু করে। তারপরেই বাসের জানলা দিয়ে বাইরে মাথা বের করে বমি করতে থাকেন তিনি। তখনই বেপরোয়া গতিতে ওই বাস টি চলতে শুরু করলে পাশের একটি ইলেকট্রিক পোলে ধাক্কা লাগে ভানুর মাথায়। ঘটনাস্থলেই ধড় থেকে মুন্ডু ছিন্ন হয়ে গিয়ে রাস্তায় পড়ে যায়। সঙ্গে সঙ্গে চিৎকার করে ওঠেন বাসের যাত্রীরা। চারদিকে রক্তে ভেসে যায়। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় ভানুর। উত্তেজিত জনতা বাসের চালককে ধরে মারধর শুরু করে। কোনও রকমে সে পালিয়ে যায় ঘটনাস্থল থেকে। খবর পেয়ে সেখানে যায় মুর্শিদাবাদ থানার বিশাল পুলিশ। ভানুর ছিন্নভিন্ন দেহাংশ উদ্ধার করে নিয়ে আসা হয় লালবাগ হাসপাতালে যায়। এদিন সন্ধ্যায় মর্গের সামনে দাঁড়িয়ে মৃতার বাবা রবি মণ্ডল বলেন “ভাবতেই পারছিনা মেয়েটার এই ভাবে মৃত্যূ হতে পারে” । মৃতার স্বামী কে তার স্ত্রীর মৃত্যু সংবাদ জানানো হয়েছে বলেই পুলিশ জানায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here