করোনাঃ আবাসনগুলিতে চাঞ্চল্য, বিভ্রান্তি বাড়ছে চিকিৎসকদের নিয়ে

0
2271

নিজস্ব সংবাদদাতা, দুর্গাপুরঃ- আবাসনে বসবাসকারি চিকিৎসকদের করোনা আক্রান্ত হওয়ার ঘটনাতে ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে শহরের বিধাননগরে। আবার পাশেই শঙ্করপুরের বেসরকারি আবাসনে দুদিন আগে দুবাই ফেরত একটি পরিবারকে নিয়েও বিস্তর চাঞ্চল্য।

বিধাননগর সংলগ্ন প্রগতি গ্রীন ‘ডি’ ব্লকে মঙ্গলবার তিন সদস্যের ওই পরিবার দুবাই থেকে ফেরে। বুধবার সকাল সকাল শঙ্করপুর হাউসিং সংলগ্ন বাজারের দোকানগুলিতে তাদের ঘোরাঘুরি করতে দেখে স্থানীয় মানুষ আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। সেখানকারই এক বাসিন্দা মহকুমা শাসককে দুবাই ফেরত পরিবারটি যে বিনা পরীক্ষায় দোকান-বাজারে ঘোরাঘুরি করে বেড়াচ্ছে,সে খবর জানান। সাথে সাথে মহকুমা শাসক পুলিশ পাঠান ওই বেসরকারি আবাসনে। সেখানকার বাসিন্দা সুশোভন পাত্র জানান, “ওনারা শিক্ষিত মানুষ হয়ে কি করে এমন বেপরোয়া আচরণ করলেন, তাই ভাবছি। বাইরে থেকে ফিরে প্রথমেই তো ওদের করোনা-পরীক্ষা করানো উচিৎ ছিল। “বুধবার সন্ধ্যায় পুলিশের উপস্থিতিতে গোটা পরিবারটিকেই হোম-কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়। একইভাবে সিটিসেন্টারের ননকোম্পানি হাউসিং-এর রাহুল সংকৃত্যায়ন বিথির একটি দিল্লি ফেরত পরিবারকে ৭ দিনের হোম-কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এদিকে করোনা-আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে থাকায় পাল্লা দিয়ে মানুষের মধ্যে রোজ বাড়ছে বিভ্রান্তি। দুর্গাপুরেরই বিধাননগরের ‘দ্য মিশন’ হাসপাতালের চার চিকিৎসকের পাশাপাশি শহরেরই গান্ধীমোড়ের “হেলথওয়ার্ল্ড” হাসপাতালের এক চিকিৎসকও করোনা-আক্রান্ত হয়েছেন বলে খবর প্রকাশিত হয়। বৃহস্পতিবার সকালে হেলথওয়ার্ল্ড হাসপাতালের মুখ্য-কাজ নির্বাহী আধিকারিক প্রবীর মুখোপাধ্যায় ‘এই বাংলায় ডট কম ‘কে সাফ জানিয়ে দেন, “আমাদের হাসপাতালের চিকিৎসকের করোনা-সংক্রমন নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ানো হচ্ছে। আমাদের চিকিৎসকেরা সকলেই সুস্থ আছেন।” তবে হেলথওয়ার্ল্ড-এই একজন করোনা আক্রান্তের হদিশ মিলেছে বলে জানান প্রবীরবাবু। এদিকে, দ্য মিশন হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, তাদের করোনা-আক্রান্ত চিকিৎসকেরা অ্যা-সিমটোম্যাটিক ছিলেন। তারা সকলেই বিধাননগরের একটি আবাসনে হোম-কোয়ারেন্টাইনে আছেন। ওই আবাসনের বাকি বাসিন্দারাও দুশ্চিন্তায় রয়েছেন।

দুর্গাপুরের মহকুমা প্রশাসনের দুই আধিকারিক পাঁচজনের করোনা-আক্রান্ত হওয়ার পরও কিছু বিভ্রান্তি ছড়ায় মোটর-ভেহিক্যালস দপ্তরের একজন চুক্তি-ভিত্তিক চিত্র-গ্রাহককে ঘিরে চিন্তান্বিত হয়ে পড়েন। প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, ওই চিত্র-গ্রাহক করোনা-আক্রান্ত নন, করোনায় অসুস্থ হয়েছেন অন্য এক ঠিকাকর্মী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here