ইস্পাত নগরী দুর্গাপুরে প্রথম করোনা আক্রান্ত রোগী পাওয়া গেল এ-জোনে

0
4338

সংবাদদাতা, দূর্গাপুরঃ- ইস্পাত নগরীর এ-জোন স্থিত সি আর দাস রোডের এক ৭৯ বছর বয়সের বাসিন্দা কিডনি ও হার্টের অসুখের জন্য দুর্গাপুরে সি টি সেন্টারে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হন চার দিন আগে। ওই ব্যক্তি হাসপাতালে ভর্তি থাকা কালীন তার জ্বর আসতে থাকে বেসরকারি হাসপাতালের চিকিৎসকদের সন্দেহ হয় এটি করোনা উপসর্গ বলে। সেইমতো তারা রোগীর করো না পরীক্ষা করেন ও রিপোর্ট পজিটিভ আসে। করোনা আক্রান্ত রোগীকে ইতিমধ্যেই দুর্গাপুর শিল্পাঞ্চলে একমাত্র কোভিড-১৯ হাসপাতাল, সনোকা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল পাঠানো হয়েছে। করোনা আক্রান্ত ওই ব্যক্তির পরিবারের পাঁচ সদস্যেকে দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে সকলের নমুনা সংগ্রহ করে টেস্ট করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে ও আইসোলেশনে পাঠানো হয়েছে। পৌরসভা ও পুলিশ থেকে এলাকা স্যানেটিসেশন করা হয়েছে। আক্রান্তের বাড়ীর সামনে রয়েছে পুলিশী সক্রিয়তা ও প্রহরা।

এই খবর আগুনের মতন ছড়িয়ে পড়ে গোটা শিল্পাঞ্চল জুড়ে। শিল্পাঞ্চলবাসীরা আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। দুর্গাপুর মহকুমা শাসক অনির্বাণ কোলে এর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে ইতিমধ্যেই সরকারি নিয়ম কানুন মেনে সমস্ত প্রক্রিয়া শুরু করে দেওয়া হয়েছে। তবুও মানুষের মন থেকে করোনা আতঙ্ক এখনও যাচ্ছে না। শিল্পাঞ্চলের বাসিন্দাদের অভিযোগ ওই হাসপাতালে যখন রোগী ভর্তি হয়েছিল তখনই কেন তার করোনা পরীক্ষা করা হয়নি। এখন তাহলে কি করে সাধারণ ইস্পাত নগরীর বাসিন্দারা তাদের রোগীদের নিয়ে ওই হাসপাতালে যাবেন। এবার কি ওই হাসপাতালের সমস্ত স্বাস্থ্যকর্মী ও চিকিৎসকরা যারা এতদিন ওই করোনা আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসারত ছিলেন, তাদের কেউ হোম কোয়ারেন্টাইন করে ল্যাবে তাদের লালারস পরীক্ষার জন্য পাঠানো হবে। সাধারণ ইস্পাত নগরীর বাসিন্দাদের মধ্যে এখন এইসব প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here