যতদিন না টিকা বা ভ্যাকসিন আসছে ততদিন করোনা ভাইরাসটা থেকে যাবে

0
1383

অমল মাজি, দুর্গাপুরঃ- সবাইকে এখন থেকেই মানসিক প্রস্তুতি নিতে হবে এবং একটা জিনিস পরিষ্কার বুঝেতে হবে, এমনি এমনি করোনা ভাইরাস নিশ্চিন্ন হয়ে যাবে না। এই ভয়ঙ্কর বিষয়টি হয়ত চলে যাবে, ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব হয়তো চলে যাবে, নিয়ন্ত্রনে চলে আসবে ভাইরাসটা। তাসত্বেও করোনা ভাইরাস থেকে যাবে। আর এই লকডাউন ?আজ না হোক কাল এই লকডাউন উঠে যাবে নিশ্চিত। তখন স্বাভাবিক জীবনে ফিরবে মানুষও। কিন্তু তারমানে এই নয় যে করোনা আর থাকবে না।
তাই লকডাউন উঠে যাওয়ার পরবর্তী সময়ও মানবজীবন আর সেই আগের মতো হবেনা। ভেতরে ভেতরে একটা ভীতি এবং আতঙ্ক কাজ করবে। সেক্ষেত্রে অবশ্যই আমাদের জীবনযাত্রার বদঅভ্যাস গুলোকে পরিবর্তন করতে হবে। বিশেষজ্ঞদের এমনটাই অভিমত।

এখন আমরা যেসব জায়গায় করোনা ভাইরাসের প্রভাব দেখতে পাচ্ছি, সেসব জায়গায় যাওয়ার ব্যাপারে ‘জীবন – সুরক্ষা’ কথা ভেবেই আমাদেরকে আরও সতর্ক হতে হবে। অর্থ্যাৎ সেইসব জায়গায় কর্মসুত্রে হোক বা অন্যকোনও কাজের জন্য হোক, সেখানে যাওয়ার আগে আমাদের সবাইকে একশোবার ভাবতে হবে। অবশ্য এই ঘটনার পর আমরা সবাই সতর্ক হবো নিশ্চিত।
ভবিষ্যতে হয়তো এই করোনা ‘র জন্য, আমাদের দেশের বিভিন্ন রাজ্যের মধ্যেও কমবেশী নিয়ম , বিভিন্ন বিধি নিষেধ চালু হতে পারে। অতএব করোনাকে চিন্তা ভাবনা, হিসেব নিকেষ সবকিছুর মধ্যে রেখেই আমাদেরকে পথ চলতেই হবে। এখনকার মতো বিভিন্ন নিয়ম মেনে চলার মতো একই নিয়ম মেনে চলতে হবে আমাদেরকে। ঠিক তেমনি, মিছিল মিটিংয়ে ,স্কুল কলেজ, বন্ধু বান্ধব সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রেও আর গলায় গলায় মেলামেশা করা চলবেনা। বাইরে বেরোলে এখনকার মতো মাস্ক পড়তে হবে, এবং নিয়ম মেনে বারবার সাবান দিয়ে হাত ধুতে হবে । উদ্দেশ্য একটাই করোনা ভাইরাসকে প্রতিরোধ করা।

বিশেষজ্ঞদের বক্তব্য , করোনা নির্মূল করতে যে ভ্যাকসিন বা টিকা দরকার সেটা হয়তো একদিন আবিষ্কার হবে। কিন্তু তা মানুষের হাতে আসতে অনেক সময় লাগবে। যতদিন পর্যন্ত করোনা নির্মূল না হচ্ছে, ঠিক তার আগে পর্যন্ত আমরা যাতে করোনা সংক্রমিত না হই তারজন্য সতর্ক থাকতেই হবে। তারই মধ্যেও হয়তো আমাদের আশেপাশে বন্ধুবান্ধব, আত্মীয়স্বজন, পরিচিতজন কেউ না কেউ এই রোগের শিকার হতেই পারে। তাদের মধ্যে কেউ কেউ হয়তো সেরে উঠবে উন্নত চিকিৎসার দৌলতে। আবার কেউ হয়ত সেরে উঠবে না। তারজন্য চিকিৎসকরা ঘরের মধ্যে থাকার পরামর্শ দেবেন। সেই পরামর্শ অনুযায়ী চলতেই হবে আমাদের সকলকেই। অতএব, লকডাউন উঠলেই কারও বাড়িতে গিয়ে ভুরিভোজ করব, পার্টি করবো , সেইসব করার আগে আমাদেরকে একশোবার ভাবতে হবে, সতর্ক থাকতে হবে। আর সেইজন্য , আগামীদিনে নিজেকে কিভাবে সুস্থ রাখা যায়, সেই কথা ভাবতে হবে সবাইকে। কারণ ,মাথায় রাখতে হবে , করোনা ভাইরাস এখনো পৃথিবী থেকে নিশ্চিন্ন হয়ে যায়নি। আর কবে যাবে তা কেউ জানে না। কোথাও না কোথাও এর লক্ষণ বহু বছর ধরে থাকবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here