আপেল চাষে নতুন দিশা দেখাচ্ছে বাঁকুড়া

0
858

সংবাদদাতা, বাঁকুড়াঃ- বাঁকুড়ায় আপেল চাষ, নতুন দিশা। বাঁকুড়ার মাটিতে আপেল চাষ? তা ও এই রকম জল মাটি আবহাওয়ায়? হ্যাঁ এই অসাধ্য সাধন করেছে বাঁকুড়ার পরশমনি । প্রচারের আড়ালে থেকেই নিজেদের ফার্মে নিরলস পরিশ্রম আর গবেষণার মাধ্যমে আপেল এর ফলন এনেছে পরশমনি। এই বাঙালি প্রতিষ্ঠান টির পরিচিতি এশিয়া তথা বিশ্ব জুড়েই। বীজের ভ্যারাইটি, জৈব চাষ, গোখাদ্য, এবং আম উৎপাদনে বাংলার অনন‌্য সেরা প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তুলেছে। এবার তাকে লাগিয়ে দিয়েছে একটি উন্নত প্রজাতির “গ্ৰীন” আপেল গাছ লাগিয়ে ও তার ফলন এনে। সংস্থার পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, এটি পরীক্ষা মূলক ও গবেষণা পর্যায়ে আছে। গত দু তিন বছর ধরে তাঁরা মীরাট এর গবেষণা ক্ষেত্র থেকে চারা এনে পরিচর্যা করে এবার ই প্রথম ফলন এনেছেন। মাটি, জল হাওয়া ও গুণমান দেখে পরীক্ষায় সফল হলে পরশমনি নামবে বানিজ্যিক ভাবে। তাদের নিজস্ব ফার্মে ইতিমধ্যে নানান প্রজাতির আম, বেদানা, মৌসুম্বী র বানিজ্যিক উৎপাদনে মিলেছে অভাবনীয় সাফল্য। এবার আপেল এর গবেষনায় সফল। সম্ভবতঃ নদীয়া ও বাঁকুড়া এক ই খাতায় নাম লিখিয়ে রেকর্ড গড়ে ফেলল। এবার সত্যি সত্যি আপেল, কুমড়ো কে আপেল বলার দিন শেষ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here