বাঁকুড়ার ধবগ্রামে বসে ভুয়ো ই ওয়ালেট তৈরি করে দেশের প্রতারণা চক্রগুলিকে বিক্রি, গ্রেফতার ৬

0
431

সংবাদদাতা,বাঁকুড়া:- জাল নথি দিয়ে সিমকার্ড কিনে হাজার হাজার ই ওয়ালেট বানিয়ে তা দেশ জুড়ে ছড়িয়ে থাকা প্রতারণা চক্রগুলিকে বিক্রির অভিযোগে বাঁকুড়ার ধবগ্রাম থেকে এক যুবককে গ্রেফতার করল পুলিশ। ধৃতের নাম অভিষেক মণ্ডল। ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে আরও ৫ জনকে গ্রেফতার করেছে বাঁকুড়া থানার পুলিশ। উদ্ধার হয়েছে ৯ হাজারের বেশি সিম কার্ড, একটি ল্যাপটপ, একটি কম্পিউটার এবং বহু ভুয়ো নথি। ধৃত অভিষেকের কাছ থেকে উদ্ধার হয়েছে নগদ এক লক্ষ ১৫ হাজার টাকা, ব্যাঙ্কের সাতটি পাশ বই । এ ছাড়াও ১৫টি ব্যাঙ্ক আকাউন্টেরও হদিশও মিলেছে। ধৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করে এখনও পর্যন্ত ১০ হাজার ভুয়ো ই ওয়ালেট অ্যাকাউন্টের হদিশ পেয়েছে পুলিশ। আর ওই সব ই ওয়ালেট অ্যাকাউন্ট গুলি দেশের সাইবার প্রতারণা চক্রগুলিকে বিক্রি করে গত দু’বছরে লক্ষ লক্ষ টাকা আয় করেছে অভিষেক।

জানা গিয়েছে উচ্চ মাধ্যমিক পাশ অভিষেকের ছোট থেকেই মোবাইল বিশেষজ্ঞ হওয়ার ইচ্ছে ছিল। সেই ইচ্ছে থেকেই বাঁকুড়ার ধবগ্রামে বসেই সাইবার প্রতারণার জগতে পা রাখে অভিষেক। তদন্তে পুলিশ জানতে পেরেছে ভুয়ো ই ওয়ালেট অ্যাকাউন্ট তৈরিতে অভিষেককে সাহায্য করত কোতুলপুরের বাসিন্দা রামপ্রসাদ দিগর এবং ওন্দার বাসিন্দা রাজারাম বিশ্বাস নামে দুই যুবক। রামপ্রসাদ বিভিন্ন জায়গা থেকে সাধারণ মানুষের নথি জোগাড় করত। ছবির জন্য সাহায্য় নেওয়া হত ফেসবুক সহ বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ার। এবার ওই নথি ও ছবি চলে যেত ওন্দার রাজারামের কাছে। একটি মোবাইল পরিষেবা প্রদানকারী সংস্থার ডিলার রাজারাম ওই ভুয়ো নথি এবং ছবি ব্যবহার করে কাস্টমার আপ্লিকেশন ফর্ম পূরণ করে সিম কার্ড অ্যাক্টিভেট করত। ভুয়ো নথির ভিত্তিতে অ্যাক্টিভেট করা সেই সিম কার্ডগুলি সোজা চলে যেত অভিষেকের কাছে। এই সিমগুলির ভিত্তিতেই অভিষেক তৈরি করত হাজার হাজার ই ওয়ালেট অ্যাকাউন্ট। এই ধরনের অ্যাকাউন্ট সে বিক্রি করত দেশের তাবড় সাইবার জালিয়াত চক্রগুলিকে। দেশের কোন কোন প্রতারণা চক্রের সঙ্গে অভিষেকের যোগ রয়েছে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here