সল্টলেকে বসে বসেই চলত আমেরিকায় ‘প্রতারনা

0
399

সংবাদদাতা, কলকাতাঃ-

সল্টলেকে বসে বসেই চলত আমেরিকায় ‘প্রতারনা’। এই ভাবে প্রতারিত হয়েছেন বহু মার্কিন নাগরিক। কয়েক কোটি টকার প্রতারনার অভিযোগের তথ্য সামনে উঠে এসেছে। পুলিশি সূত্রের খবর, সল্টলেক সেক্টর ফাইভে তৈরী হয়ে উঠেছিল একটি জাল ইন্টারন্যাশানাল কল সেন্টার। সেখানে ট্যাক্স কনসাল্টেন্সি নামে এক ভুয়ো সংস্থা খোলা হয়। ওই অফিসে বসে বসেই ফোন করা হত মার্কিন নাগরিকদের। কর মিটিয়ে দেওয়ার নাম করে মোটা টাকার দাবি করা হত। এই সমস্ত প্রতারকদের জালে পয়া দিয়ে বহু মার্কিন নাগরিক প্রতারিত হয়েছেন। কলকাতার বিধাননগর পুলিশ কমিশনারেটের ডিসি কুনাল আগরওয়াল জানান, সল্টলেকে বসে মার্কিন নাগরিকদের প্রতারনার অভিযোগে ইতিমধ্যেই ৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এই প্রতারকরা দিল্লি, মুম্বই, আমেদাবাদের বাসিন্দা। এরই মধ্যে ওই সংস্থা থেকে বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে প্রচুর হার্ড ডিস্ক, মোবাইল ফোন, ল্যাপটপ সহ বিদেশিদের নামের তালিকা ও প্রচুর মেইল আইডি। এখন অবশ্য সিল করে দেওয়া হয়েছে ওই ভুয়ো অফিসটি। ইতিমধ্যেই তদন্তে নেমেছে
বিধাননগর পুলিশের সাইবার ক্রাইম থানা। তাঁরা জানতে পেরেছে এই কল সেন্টারের মুল অভিযুক্ত হল মুম্বইয়ের বাসিন্দা তৌহিদ ওয়াহিদ খান(২৫)। পুলিশ এক সূত্রে খবর পেয়ে বেকবাগানের একটি রেস্তোরায় হাকনা দিয়ে তৌহিদকয়ে হাতেনাতে ধরে। তাকে জেরা করে বাকি প্রতারকদের খোঁজ পায় পুলিশ। ধৃতরা হল আমেদাবাদের প্যাটেল রিচেশ(৩০), মুম্বইয়ের জিনাত রবিন জোসেফ(২৯), এবং চেম্বুরের আশরাফ গনি(২৬)।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here