ব্যাপক ক্ষতির সম্মুখীন ডেকরেটর শিল্প , রাজ্যজুড়ে ধর্মঘটরে ডাক পশ্চিমবঙ্গ ডেকরেটর সমন্বয় সমিতির

0
374

এইবাংলায় ওয়েব ডেস্কঃ- করোনা মহামারী রুখতে গত বছর মার্চ মাস থেকে দেশ জুড়ে চালু হয় লক ডাউন। পরে লক ডাউন উঠলেও এবছর ফের লকডাউন ও স্বাস্থ্য বিধির গেঁরোয় ছোট বড় একাধিক শিল্প ও ব্যবসা। ছোটখাট ব্যবসার মধ্যে সবচেয়ে বেশী যে ব্যবসা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তারমধ্যে অন্যতম ডেকোরেটর শিল্প। করোনার কারণে বেশী মানুষের জমায়েত নিষিদ্ধ হওয়ায় বিভিন্ন ধর্মীয়, সামাজিক, পারিবাকির অনুষ্ঠান প্রায় বন্ধ রয়েছে বছর দেড়েক। অল্প কিছু সংখ্যক পারিবারিক অনুষ্ঠান হলেও ৫০ জনের বেশী মানুষের জমায়েতের অনুমতি নেই। তাই প্রায় প্রয়োজন পড়ছে না ডেকরেটরস, লাইট, মাইক, ক্যাটারিংয়ের। ফলে ব্যপক ক্ষতির সম্মুখীন এই শিল্প।

তাই এই শিল্পকে বাঁচাতে পথে নামল পশ্চিমবঙ্গ ডেকরেটর সমন্বয় সমিতি। একাধিক দাবিদাওয়া নিয়ে চলতি মাসের ২০ তারিখ অর্থাৎ আগামী ২০ শে সেপ্টেম্বর রাজ্য জুড়ে ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে এই সংগঠন। তাদের দাবি দাওয়াগুলির মধ্যে রয়েছে-

১.ডেকরেটরস সহ লাইট, মাইক, ফুল, ফুল, ক্যাটারিং শিল্পকে বাঁচাতে ৫০ জনের বিধিবদ্ধ নিমন্ত্রিতের তালিকা শিথিল করতে হবে।

২.এম এস এম ই দপ্তরের মাধ্যমে স্বল্প সুদে দুঃস্থ ডেকরেটরদের অনুদান ভিত্তিক ঋণ এর ব্যবস্থা করতে হবে।

৩.সরকারি দপ্তরে ডেকরেটরদের কাজ সিভিল কনট্রাক্টরদের দেওয়া চলবে না।

৪. ডেকরেটর শিল্পের উপর আরোপিত ১৮ শতাংশ জিএসটি পরিবর্তন করে ৫ শতাংশ করতে হবে।

৫.মাইক এবং লাইট ব্যবসায়ীদের অযথা পুলিশি হয়রানী বন্ধ করতে হবে।

প্রসঙ্গত, পশ্চিমবঙ্গ ডেকরেটর সমন্বয় সমিতির সঙ্গে যুক্ত রয়েচেন রাজ্যের প্রায় ৩৫ হাজার ডেকরেটর ব্যবসায়ী। একজন ডেকরেটরের সঙ্গে কাজ করেন গড়ে দশ জন কর্মচারী। ফলে এই শিল্পের মন্দায় ক্ষতির মুখে প্রায় লক্ষাধিক পরিবার। ব্যাবসায়ীদের দাবি যা অবস্থা তাতে ব্যবসা টিকিয়ে রাখা প্রায় সম্ভব হয়ে দাঁড়িয়েছে। তাই ব্যবসায়ীদের দাবি তাদের দাবিদাওয়াগুলি সত্বর পূরণ করে এই শিল্পকে পুনরুজ্জীবনের ব্যবস্থা করুক সরকার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here