শিল্পশহরের লোকসভা ভোটার সংখ্যা ও তার বয়সের পরিসংখ্যান

0
740

নিউজ ডেস্ক, এই বাংলায়ঃ ২০১৯ লোকসভা ভোট দোরগোড়ায়। শাসক-বিরোধী সমস্ত দলের প্রার্থী তালিকাও ইতিমধ্যে পৌঁছে গেছে সমস্ত দলের প্রার্থী থেকে শুরু করে দলীয় কমিটির অন্দরে। প্রত্যেক দিন বিভিন্ন দলের প্রার্থীদের নিয়ে চলছে বিস্তর কাঁটাছেঁড়াও। তবে শুধু যে কাঁটাছেঁড়াতেই সীমাবদ্ধ রয়েছে রাজনৈতিক দলগুলি তাও নয়, বিরোধী দলের প্রার্থীদের জন্ম-কুন্ডলী জোগাড় করে তা অনুবীক্ষন যন্ত্রের তলায় ফেলে চলছে যাচাই কাজও। কারণ বিরোধী দলের কোনও নেতিবাচক তথ্য অন্য দলের কাছে প্রচারের অন্যতম হাতিয়ার। শাসক-বিরোধী ছোট-বড় সমস্ত রাজনৈতিক দলের নেতা-নেতৃত্বই বর্তমানে চরম ব্যস্ত। কিন্তু তাদের এই ব্যস্ততা আর প্রচারের ঠেলায় ক্যামেরা থেকে উধাও হয়ে গেছেন যাদের জন্য এই লোকসভা ভোট। সাধারণ মানুষ তথা দেশের ভোটাররা। ভোট প্রচারের ঠ্যালায় সমস্ত লাইম লাইট যখন বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের হেভিওয়েট প্রার্থী থেকে শুরু করে অনামী প্রার্থীদের উপর তখন সবসময়ের মতো আজও ব্রাত্য সাধারণ নাগরিক। অথচ তাদের ভোটেই চলতি মাসের শেষ হাসি হাসবে বর্তমান কোনও রাজনৈতিক দল, উৎসবে মাতবেন কর্মী-সমর্থকেরা। তাই আসন্ন লোকসভা ভোটে দুর্গাপুর-আসানসোলের বিভিন্ন কেন্দ্রগুলিতে ঠিক কতজন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন এবং সেই ভোটারদের বর্তমান বয়স অনুযায়ী ঠিক কোন কোন বয়সের কতজন ভোটার রয়েছেন সেই পরিসংখ্যান তুলে ধরতেই এই বাংলায় এর এই বিশেষ প্রতিবেদন। তথ্য ও সমীক্ষা অনুযায়ী আসানসোল-দুর্গাপুর-বর্ধমান বিধানসভা কেন্দ্রের মোট ভোটার সংখ্যা নীচে তুলে ধরা হলঃ-
১। পান্ডবেশ্বর (২৭৫) – ১,৯৯,৭৩১, দুর্গাপুর (পূর্ব-২৭৬) – ২,৪৪,২৪৩, দুর্গাপুর (পশ্চিম-২৭৭) – ২,৫৬,৪৪৬, রানীগঞ্জ (২৭৮) – ২,৩৮,৬৯৬, জামুরিয়া (২৭৯) – ২,০৮,৮৪৬, আসানসোল (দক্ষিণ-২৮০) – ২,৫৮,১৯২, আসানসোল (উত্তর-২৮১) – ২,৫৬,১১৭, কুলটি (২৮২) – ২,৩৮,২১১, বারাবনী (২৮৩) – ২,১৫০,৩৭। মোট ভোটার সংখ্যা – ২১,১৫,৬১৪ জন।

এবার দেখা যাক, বয়সের নিরিখে এই মোট ভোটারদের তালিকা। সমীক্ষা থেকে জানা গেছে, এই মুহূর্তে উপরিউক্ত এই ৯টি বিধানসভা কেন্দ্রে বিভিন্ন বয়সের বিভিন্ন ভোটার রয়েছেন।

১৮ থেকে ২৯ বছরের মোট ভোটার – ৫,১৮,৩৫০ জন
৩০ থেকে ৪৯ বছরের মোট ভোটার – ৯,৬৭,৪১৪ জন
৫০ থেকে ৬৯ বছরের মোট ভোটার – ৫,৩৩,২৮৩ জন
৭০ থেকে ৮৮ বছরের মোট ভোটার – ৯৫,৪৫২ জন
৯০ থেকে ১০০ বছরের উর্ধতন ভোটার – ১১১৫ জন

জানা গেছে, এদের মধ্যে ১০০ বছরের বেশী বয়সী রয়েছেন ১৯ জন ভোটার। এরকমই এক ভোটারের খোঁজ পাওয়া গেল দুর্গাপুর পুরসভার ১৩ নং ওয়ার্ডে। যেখানে নেতাজী নগর কলোনী এলাকায় দেশ স্বাধীন হওয়ার পর থেকেই ভোটাধিকার প্রয়োগ করে আসছেন শেফালী সমাদ্দার নামে ১০৩ বছর বয়সী এক প্রৌঢ়া। মঙ্গলবার খোদ মহকুমাশাসক অনির্বাণ কোলে অন্যান্য আধিকারিকদের সঙ্গে নিয়ে শেফালী দেবীর বাড়ি পৌঁছান। সেখানে তাঁকে পুস্প স্তবক দিয়ে সম্মান জানান মহকুমাশাসক। মূলত গত কয়েকদিন থেকেই সাধারণ মানুষকে তাদের গনতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগ করার জন্য উৎসাহিত করতে বিভিন্ন স্তরের মানুষের কাছে পৌছাচ্ছেন দুর্গাপুরের মহকুমাশাসক। গত কয়েকদিন ধরে এলাকার যৌন পল্লী থেকে শুরু করে তৃতীয় লিঙ্গের ভোটারদের সঙ্গে দেখা করে তাদের ভোটদানে উৎসাহিত করার উদ্যোগ নিয়েছেন মহকুমাশাসক অনির্বাণ কোলে। সেইমতো মঙ্গলবার থেকে শুরু হয়েছে শতাধিক বছর পার করা ভোটারদের সঙ্গে সাক্ষাৎ। জানা গেছে, দুর্গাপুরে বর্তমানে শতাধিক বছর বয়সী তিনজন ভোটার রয়েছেন। একে একে সকলের কাছেই পৌছাচ্ছেন মহকুমাশাসক। প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, এইসমস্ত ভোটাররা যাতে ভোটের দিন নির্বিঘ্নে ও সুষ্ঠভাবে ভোট দিতে পারেন সেইজন্য নির্দিস্ট দিনে প্রশাসনিক তরফে তাদের বাড়িতে বাড়িতে গাড়ি পাঠিয়ে তাদের পরিবারের সমস্ত সদস্যদের একসঙ্গে নিয়ে ভোট কেন্দ্রে নিয়ে গিয়ে বিনা লাইন দিয়ে ভোট প্রদানেরও ব্যবস্থা করা হয়েছে।