দুর্গাপুর ও পার্শ্ববর্তী এলাকায় একের পর এক চুরির ঘটনা, বাড়ছে বহিরাগতদের আনাগোনা

0
1269

নিউজ ডেস্ক, এই বাংলায়ঃ দুর্গাপুর তথা পার্শবর্তী এলাকায় চুরির ঘটনা বর্তমানে রোজনামচা হয়ে দাঁড়িয়েছে। গত কয়েক মাসে দুর্গাপুর, অন্ডাল, পান্ডবেশ্বর, লাউদোহা, কাঁকসা সহ বিভিন্ন এলাকায় চুরির একাধিক ঘটনা ঘটেছে। কখনো বন্ধ ঘরের তালা ভেঙে, কখনো মন্দিরের তালা ভেঙে, কখনো প্রকাশ্যে দাঁড়িয়ে থাকা গাড়ির কাঁচ ভেঙে সর্বস্ব লুঠ করে চম্পট দিয়েছে দুষ্কৃতিরা। ঘটনা এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে বর্তমানে বাড়ি ফাঁকা রেখে কোথাও যেতে হলে চরম আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন শিল্পশহর ও আশেপাশের এলাকার সাধারণ মানুষ। এবার সেই চুরির ঘটনার তালিকায় নতুন সংযোজন হল গাড়ি চুরির ঘটনা। গত ২৬শে জুন দুর্গাপুরের লাউদোহা-ফরিদপুর ব্লকের মাধাইপুরের বাসিন্দা মনোজিত সরকারের বাড়ির সামনে থেকে চুরি হয়ে যায় তার বোলেরো গাড়ি। যার নম্বর ছিল – WB 40W 6798। ঘটনার পর প্রায় ১৫ দিন পেরিয়ে গেলেও পুলিশের তরফে চুরি যাওয়া গাড়ির কোনও কিনারা করা যায়নি। এরকম পরিস্থিতি চরম আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন সাধারণ মানুষ। তাদের অভিযোগ, দিনের পর দিন দুর্গাপুরের বিভিন্ন এলাকায় বহিরাগতদের আনাগোনা বেড়েই চলেছে। এলাকাবাসীদের দাবি, বীরভূম সহ অন্যান্য জেলা থেকে বহিরাগতদের আনাগোনা বাড়তে থাকায় এলাকায় বালি ও কয়লা চুরির ঘটনা বেড়েছে তেমনি তাৎপর্যপূর্ণভাবে বেড়েছে চুরির ঘটনা। একটু অসতর্ক মুহূর্তেই নিমেষে সর্বস্ব চুরি করে চম্পট দিচ্ছে দুষ্কৃতিরা। ফলে দিনের পর দিন এভাবে শিল্পশহরের বিস্তীর্ণ এলাকা জুড়ে চুরির ঘটনা বেড়ে চলায় স্বাভাবিকভাবেই যেমন আতঙ্কিত সাধারণ মানুষ তেমনি প্রশাসনের ভূমিকা নিয়েও তাদের মনে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। দুষ্কৃতি দৌরাত্ম্য রুখতে পুলিশ প্রশাসনের তরফে আরও সজাগ ও কড়া নজরদারির দাবি জানিয়েছেন তারা।