কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের বিরুদ্ধে একজোট দুর্গাপুরের আইনী কলেজ ও পড়ুয়ারা

0
952

নিজস্ব প্রতিনিধি, দুর্গাপুরঃ বার কাউন্সিল অফ ইন্ডিয়া ও আসানসোলের কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে টানাপোড়েন। আর ওই দুই কর্তৃপক্ষের টানাপোড়েনে একদিকে যেমন বিতর্কের কবলে পড়েছে দুর্গাপুরের বেসরকারী আইনী কলেজ তেমনি বার কাউন্সিলের অনুমোদনহীন বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়ন্ত্রণাধীন কলেজ থেকে আইনী বিষয়ে পড়তে আসা প্রায় ১০০০ জন পড়ুয়ার ভবিষ্যতও অন্ধকারে। কারণ সোমবার দুর্গাপুরের ইন্সটিটিউট অফ লিগ্যাল স্টাডিজের পড়ুয়ারা এই মর্মে অভিযোগ তোলে যে দুর্গাপুরের এই কলেজ বার কাউন্সিল অফ ইন্ডিয়া দ্বারা স্বীকৃত নয়। এই মর্মে পড়ুয়ারা কলেজের ডিড়েক্টরকে দায়ী করে। কর্তৃপক্ষের সঙ্গে দীর্ঘ সময় ধরে আলাপ আলোচনার পরে ছাত্র-ছাত্রীরা বুঝতে পারে তাদের এই অভিযোগ অমূলক। কারণ তারা জানতে পারে দুর্গাপুরের ইন্সটিটিউট অফ লিগ্যাল স্টাডিজের (DILS) ২০০৬ সাল থেকেই বিসিআই দ্বারা স্বীকৃত ও সমাদৃত। এই কলেজ ২০১৫ সালে কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের আওতায় আসার পরিপ্রেক্ষিতে যে জটীলতার সৃষ্টি হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফে উদ্যোগের ফলে অচিরে তার অবসান হবে বলে কর্তৃপক্ষ ছাত্রদের জানান। ছাত্ররা বুঝতে পারে জটিলতার উৎস হল বার কাউন্সিল অফ ইন্ডিয়ার কাছে কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমোদন না থাকা। পড়ুয়ারা জানিয়েছে কলেজ কর্তৃপক্ষের সহযোগীতায় অবিলম্বে তারা আসানসোলে কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ে গিয়ে দ্রুত বার কাউন্সিল অফ ইন্ডিয়ার অনুমোদনের জন্য দাবী জানাবে।