দুর্গাপুরে প্রতিবন্ধী মহিলাকে ধর্ষণ করে খুন, অন্য আরও এক মহিলার শ্লীলতাহানির অভিযোগ

0
2284

নিউজ ডেস্ক, এই বাংলায়ঃ একই দিনে জোড়া যৌন হেনস্থার ঘটনা। এক মূক ও বধির মহিলাকে ধর্ষন করে খুনের অভিযোগ, আবার অন্যদিকে গ্রুপ ডি-র এক মহিলা কর্মীকে যৌন হেনস্থার অভিযোগ উঠল সহকর্মীর বিরুদ্ধে। প্রথম ঘটনা দুর্গাপুরের কাশীরাম বস্তি এলাকার। জানা গেছে, নমিতা রুই দাস নামে ওই প্রতিবন্ধী মহিলার পরিবারের সদস্যরা বিয়ে বাড়ি যাওয়ায় বাড়িতে একাই ছিলেন তিনি। অভিযোগ, সোমবার সকালে মৃতা ওই মহিলার ছেলে বাড়িতে ঢুকে দেখে মৃত অবস্থায় তার মা বিছানায় পড়ে রয়েছে এবং ঘরের টালির ছাদের একাংশ খোলা অবস্থায় রয়েছে। এরপর সে পাড়ার প্রতিবেশীদের জানালে প্রতিবেশীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই মহিলাকে নগ্ন ও মৃত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেয়। প্রতিবেশীদের অনুমান, বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে এক বা একাধিক দুষ্কৃতি টালি খুলে ঘরের ভেতরে ঢুকে প্রতিবন্ধী ওই মহিলাকে ধর্ষন করে, এরপর প্রমাণ লোপাট করতে তাকে খুন করে চম্পট দেয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় দুর্গাপুর থানার পুলিশ। স্থানীয় বাসিন্দারা অবিলম্বে ঘটনার সঙ্গে জড়িত বা জড়িতদের গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছে। অন্যদিকে দুর্গাপুর ইস্পাত কারখানায় গ্রুপ ডি-র এক মহিলা কর্মীর শ্লীলতাহানির অভিযোগ উঠল দুর্গাপুর ইস্পাতের ডিএম (প্রজেক্ট) এম পি সিং-র বিরুদ্ধে। জানা গেছে, ওই মহিলার স্বামী মারা যাওয়ার পর স্বামীর জায়গায় তিনি কাজ পেয়েছিলেন। ওই মহিলার অভিযোগ, গত কয়েকদিন ধরেই ওই আধিকারিক তার সঙ্গে অশালীন আচরণ করছিল। জানা গেছে অভিযুক্ত এম পি সিং মাস খানেক আগেই ভিলাই থেকে দুর্গাপুরে এসেছিলেন। মহিলা কর্মীর ওপর এহেন শ্লীলতাহানির ঘটনা সামনে আসার পর থেকেই শ্রমিক সংগঠনের তরফে ঘটনার তীব্র নিন্দা করে অভিযুক্ত ওই আধিকারিকের শাস্তির দাবি জানানো হয়েছে।