দুর্গাপুরে প্রখর রোদ্রে কাদা মাখিয়ে, হনুমান সাজিয়ে শিশুদের নিয়ে নির্বাচনী মিছিল তৃণমূলের

0
2824

এই বাংলায়, নিউজ ডেস্কঃ নির্বাচন যত এগিয়ে আসছে ততই নির্বাচনী প্রচারে রঙ ঢালছে শাসক, বিরোধী বিভিন্ন রাজনৈতিক দল। ভোট প্রচারে নিত্যনতুন চমক এনে সাধারণ মানুষের ভোট টানতে শাসক, বিরোধী বিভিন্ন পক্ষই যখন ব্যস্ত তখন বৃহস্পতিবার দুর্গাপুরে নির্বাচনী প্রচারে চমক আনতে খুদে শিশুদের কাদা ও কালি মাখিয়ে, প্রখর রোদে শোভাযাত্রা বের করে ব্যাপক বিতর্কের মুখে পড়ল তৃণমূল কংগ্রেস। ঘটনার সূত্রপাত বৃহস্পতিবার সকালে। দুর্গাপুরের তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী মমতাজ সংঘমিতার সমর্থনে এক বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রার আয়োজন করেছিলেন দুর্গাপুরের ১৫ নং ওয়ার্ডের পুরমাতা অসীমা চক্রবর্তী। ঢাক, ঢোল, ব্যান্ড-পার্টি, খোল-করতাল, নকুল-দানা বিতরণ এবং সুসজ্জিত ট্যাবলো সমেত এই শোভাযাত্রার প্রধান আকর্ষণ ছিল জনা কয়েক খুদে শিশু। কারণ ভোট প্রচারের এই শোভাযাত্রায় তিনজন নাবালক শিশুকে খালি গায়ে কাদা মাখিয়ে, মুখে কালো কালি মাখিয়ে হনুমানের সাজে সজ্জিত করা হয়েছিল। মূলত শোভাযাত্রায় সাধারণ মানুষের নজর কাড়তেই এই খুদে শিশুদের হনুমানের রূপ দেওয়া হয়েছিল। আর এই ছবি বা ভিডিও প্রকাশ্যে আসতেই শিল্পাঞ্চল জুড়ে শুরু হয়েছে তুমুল বিতর্ক। শাসকদলের এহেন কার্যকলাপকে একেবারেই ভালো চোখে নেয়নি বিরোধী দল বিজেপি। কোনও নাবালক শিশুকে এই প্রখর রোদে কাদা মাখিয়ে রাস্তায় হাঁটিয়ে ভোট প্রচারে ব্যাপক আপত্তি জানিয়ে শাসকদলকে কোণঠাসা করতে শুরু করেছে বিরোধী দলগুলি। দুর্গাপুরের বিজেপি গুনীজন সেলের আহ্বায়ক অমিতাভ বন্দ্যোপাধ্যায় শাসক দলের এহেন কর্মকান্ডকে একহাত নিয়ে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করার পাশাপাশি, এই ঘটনাকে ভারতীয় নির্বাচনী আইনের পরিপন্থী বলে আঙুল তুলেছেন শাসকদলের বিরুদ্ধে। তার বক্তব্য, আঠেরো বছরের নিচে কোনও নাবালককেই এইভাবে সং সাজিয়ে রাস্তায় হাঁটিয়ে রাজনৈতিক প্রচারে ব্যবহার করা যায় না। এখানেই থেমে থাকেন নি অমিতাভ ব্যানার্জী, গোটা ঘটনায় শাসক দলের বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনে যাওয়ার কথাও জানিয়েছেন তিনি। অন্যদিকে, ভোটপ্রচারে চমক আনতে গিয়ে এহেন ঘটনায় রীতিমতো ব্যাকফুটে চলে গিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। তাঁর আঁচ পাওয়া গেল বৃহস্পতিবারের সেই বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রায় উপস্থিত থাকা এবারের দুর্গাপুরে লোকসভা ভোটের তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী মমতাজ সংঘমিতার কথায়। বিতর্কককে লঘু করতে, প্রথমে সম্পূর্ণ ঘটনা থেকে দায় এড়ানোর চেষ্টা করলেও, পরক্ষনেই তাঁর সাফাই, বিষয়টিকে নিয়ে এত বড় ইস্যু করার কোনও প্রয়োজন ছিল না। তাঁর কথায়, আমরা প্রত্যেকেই ছোটবেলায় মনোরঞ্জনের জন্য বিভিন্ন রকম বহুরূপী সাজে সেজে রাস্তায় বেরিয়েছি। কিন্তু এক্ষেত্রে ওই তিন নাবালককে প্রচারের সময় রাস্তায় হাঁটানো হয়নি। কিন্তু বৃহস্পতিবার সকালের সেই বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রার ছবি সম্পূর্ণ অন্য কথা বলছে। সেখানে পরিষ্কার দেখা গেছে, ওই শোভাযাত্রাই তিন নাবালকের হনুমান সেজে রাস্তায় হেঁটে যাওয়ার ছবি, অথচ সেই মিছিলেই তৃণমূল কংগ্রেসের একটি সুসজ্জিত ট্যাবলো গাড়িতে দুই তৃণমূল কর্মীকে গাড়িতে আরাম করে বসে নকুলদানা বিলি করতে দেখা গেছে। যা দেখে দুর্গাপুরবাসীও প্রশ্নও তুলেছে ওই তিন নাবালককে কেন গাড়িতে বসানোর ব্যবস্থা করা হল না? স্বভাবতই বৃহস্পতিবারের এই ভোট প্রচার ভোটের আগে তৃণমূল কংগ্রেস শিবিরে অস্বস্তি বাড়ালো তা বলাই বাহুল্য।