‘আমলা’ মেয়র দিলীপ অগস্থিকে হঠিয়েই দিচ্ছে রাজ্য , দুর্গাপুরের নতুন মেয়র পদে অনিন্দিতা

0
8202

মনোজ সিংহ, দুর্গাপুরঃ- সরিয়েই দেওয়া হচ্ছে দুর্গাপুরের বিতর্কিত মেয়রকে । রাজ্যের পুর ও নগর উন্নয়ন দপ্তর এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর শুক্রবারই মেয়র পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে দিলীপ অগস্থিতকে।

দুর্গাপুর নগর নিগমের মেয়র দিলীপ অগস্থিকে নিয়ে গোড়া থেকেই বিরক্ত ছিলেন শাসক তৃণমূল কংগ্রেসেরই কিছু কাউন্সিলার। পুর নিগমের মেয়রের ‘ঔদ্ধত্যপূর্ণ’ এবং ‘হামবড়াই’ আচরণের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ ও দেখিয়েছিলেন দু’বার। অনেক প্রত্যাশা নিয়ে দুর্গাপুরের পৌর পরিষেবায় স্বচ্ছতা এবং গতি আনার লক্ষ্যে অরাজনৈতিক দিলীপকে মেয়র পদে বসিয় রাজ্য তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব। কিন্তু গোড়া থেকেই প্রকাশ্যে যাকে তাকে ‘চোর’ বলা, অপমানসূচক আলগা কথা বলা এবং নিজেকে উচ্চপদে আসীন সরকারি আমলা বলে জাহির করে কি দলীয় কর্মীয়,কি পুরপিতা -সকলেই অভিযোগের কেন্দ্রবিন্দু হয়ে ওঠেন তিনি। বিধানসভা ভোটের আগে একটি প্রশাসনিক বৈঠকের এসে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজেও সমস্ত প্রশাসনিক কর্তা -ব্যক্তিদের সামনে এমনকি দলীয় বিধায়ক, সাংসদদের সামনে কড়া ভাষায় ধমক দেন দিলীপকে। প্রকাশ্যে এভাবে ধমক খাওয়া দিলীপ একসময় দল ছেড়ে বিজেপিতে চলে যাবেন বলে রাজনৈতিক চর্চা শুরু হয়ে যায়। যদিও, কোনো পক্ষেই হালে পানি না পেয়ে শেষমেষ চুপ করে যেন মেয়র।

সেই দিলীপকেই এবার মেয়রের পদ থেকে সরিয়ে দিচ্ছে রাজ্য সরকার । শুধু সরানোই নয়, দিলীপের পক্ষে যা আরো অস্বস্তির হতে চলেছে, তাকে বদলিয়ে , তার আসনে এবার অনিন্দিতা মুখোপাধ্যায়কে বসাচ্ছে তৃণমূল । তার স্বামীর ছেড়ে যাওয়া আসনে সম্ভবতঃ আগামী সপ্তাহেই অভিষেক হবে অনিন্দিতার। তার স্বামী অপূর্ব মুখোপাধ্যায় ২০১২ সালে দুর্গাপুর পুর নিগমের মেয়র হন। ‘কাজে প্রত্যাশিত গতি আনতে ব্যর্থ’ – এই কারণ দেখিয়ে ২০১৭ র পুর নির্বাচনে তাকে আর প্রার্থীই করেনি তৃণমূল। বদলে অনিন্দিতাকে শহরের ২২ নম্বর ওয়ার্ড থেকে জিতিয়ে এনে ডেপুটি মেয়র পদে বসানো হয়। এবার সেই অনিন্দিতাই মেয়র হচ্ছে আর ডেপুটি মেয়রের পদে ফিরিয়ে আনা হচ্ছে অমিতাভ বন্দ্যোপাধ্যায়কে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here