শান্ত শিল্পতালুকে অশান্ত করার অপচেষ্টার অভিযোগ দুর্নীতিগ্রস্ত, তোলাবাজ, লোহাচোর তৃণমূল কর্মীদের একাংশের

0
1893

নিজস্ব সংবাদদাতা, দুর্গাপুরঃ- কয়েকদিন আগে কলকাতার নিউটাউনের বিশ্ববাংলা কনভেনশন সেন্টারে অনুষ্ঠিত হয়েছিল বিশ্ববাংলা বাণিজ্যিক সম্মেলন। সেই সম্মেলনে মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পরিষ্কারভাবে আগত শিল্পপতিদের জানিয়ে দিয়েছিলেন পশ্চিমবঙ্গে বিনিয়োগ করলে সইতে হবে না কোনরকম জুলুমবাজি। শান্তিপূর্ণ পরিবেশে কারখানা গড়ার অনুকূল পরিবেশ রয়েছে পশ্চিমবঙ্গে। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হাজার চেষ্টার পরেও তার দল তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীদের একাংশকে বাঘে আনতে পারতে পারছেন না। ক্ষমতালোভী, দুর্নীতিগ্রস্ত, তোলাবাজ ও একাধিক অপকর্মের সাথে যুক্ত কিছু তৃণমূল কর্মীরা পশ্চিমবঙ্গের শিল্পের জন্য আসা শিল্পপতিদের নিরন্তর অত্যাচার চালিয়ে যাচ্ছেন বলে অভিযোগ।

পশ্চিম বর্ধমান জেলার শিল্প পরিবেশেও এই রকম বহু ঘটনার নজির রয়েছে যেখানে শিল্পপতি ও শিল্প উদ্যোগীদের নিরন্তর অত্যাচার চালানো হচ্ছে একশ্রেণীর তৃণমূল কংগ্রেস নামাঙ্কিত কর্মীদের দ্বারা। এই খবর রাজ্যস্তরে তৃণমূল কংগ্রেসের কানে পৌছতেই রাজ্য সরকার আইএনটিটিইউসি শীর্ষ আধিকারিক রিতব্রতকে কয়েক দিন আগেই দুর্গাপুর শিল্পাঞ্চল পরিদর্শনে পাঠান। দুর্গাপুর শিল্পাঞ্চলে একটি বৈঠকে মিলিত হন তিনি শিল্পপতি ও কারখানার মালিকদের সাথে তাদের অভাব অভিযোগ শোনার জন্য। সেই সভাতে একাধিক শিল্পপতি ও কারখানার মালিকরা অভিযোগ তোলেন একশ্রেণীর দুর্নীতিগ্রস্ত,তোলাবাজ, তৃণমূল কর্মীদের বিরুদ্ধে। তখনই আইএনটিটিইউসি’র নেতারা ঠিক করেন অবিলম্বে পশ্চিম বর্ধমান জেলার আইএনটিটিইউসি নেতৃত্ব বদল করে নতুন করে কমিটি তৈরি করতে হবে প্রত্যেকটি শিল্প তালুকে। ঠিক সেই কথা মতোই কয়েকদিন আগে আসানসোল দুর্গাপুর এর বিশিষ্ট তৃণমূল নেতা অভিজিৎ ঘটকের নেতৃত্বে তৈরি করা হয় পশ্চিম বর্ধমান জেলা আইএনটিটিইউসি নতুন কমিটি। এই নতুন কমিটিতে তৃণমূল কংগ্রেসের একনিষ্ঠ, সৎ, দক্ষ ও সুসংগঠক কর্মীদেরকে দায়িত্ব দেওয়া হয় বিভিন্ন শিল্প তালুকে।

পশ্চিম বর্ধমান জেলার আইএনটিটিইউসি সভাপতির মনোনীত কর্মী হিসেবে দুর্গাপুর বামুনাড়া বাঁশকোপা শিল্পতালুকে দায়িত্ব দেওয়া হয় একজন সুদক্ষ, সৎ ও নির্ভীক তৃণমূল কর্মীকে। শিল্পাঞ্চলের শ্রমিকদের অভাব অভিযোগ নিবারন করার লক্ষ্যে ও দূর করার লক্ষ্যে পশ্চিম বর্ধমান জেলা আইএনটিটিইউসি সভাপতির মনোনীত ওই তৃণমূল কর্মী বামুনাড়া বাঁশকোপা শিল্প তালুকে জোরকদমে কাজ করা শুরু করেন। কাজ শুরু করতেই একশ্রেণীর দুর্নীতিগ্রস্ত, তোলাবাজ, অত্যাচারী, লোহাচোর, অসৎ তৃণমূল কর্মীদের একাংশের কুনজরে পড়তে হয়ে তাকে। সূত্র মারফত জানা গেছে বাবামুনাড়া শিল্প তালুকে বেশ কয়েক মাস ধরে স্থানীয় এক ব্যক্তি তৃণমূল কংগ্রেস শ্রমিক সংগঠনের নাম করে কারখানার মালিকদের ধমকে চমকে তোলা আদায় করছিলেন। আবার কোথাও কারখানার মালিকদের সঙ্গে মোটা টাকায় রফা করে শ্রমিকদের ছাঁটাই করতে সাহায্য করেছিলেন। যেসব তৃণমূল কংগ্রেস শ্রমিক সংগঠনের কর্মীরা এইসব ঘটনার সাথে যুক্ত তাদের মধ্যে কয়েকজন দুর্গাপুরের একটি বেসরকারি সংস্থার টি এম টি রড ভর্তি ট্রেলার লুট করার অভিযোগে জেলও খেটেছেন। স্থানীয় বামুনাড়া গ্রামের বাসিন্দারা জানিয়েছেন “বাঁশকোপা শিল্প তালুকের শ্যাম স্টিল নামক এক কারখানাকে অবৈধভাবে মোটা টাকা ঘুষ খেয়ে গ্রামেরই একটি বড় পুকুরের পাড় কেটে তাদের পণ্যবাহী গাড়ি রাখার পার্কিং তৈরি করতে সাহায্য করেছে ওই দুষ্টু, দুর্নীতিগ্রস্ত, তোলাবাজ, অত্যাচারী, লোহা চোরের দল।”

অন্যদিকে বামুনাড়া বাঁশকোপা শিল্প তালুকের শ্রমিকরা অভিযোগ করেন, “বেঙ্গল হাইটেক নামক এক কারখানা কয়েক বছর আগে বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। বন্ধ হওয়ার আগে ওই কারখানায় ইউনিয়ন লেবার/শ্রমিক সংখ্যা ছিল ৭৬ জন । সেই কারখানাটি আবার কয়েক মাস হল নতুন করে চালু হয়েছে। কিন্তু ওই দুষ্টু, দুর্নীতিগ্রস্ত, তোলাবাজ, অত্যাচারী, লোহা চোরের দল কারখানার মালিকের সাথে গোপনে মোটা টাকার রফার করে মাত্র ২৩ জন ইউনিয়ন লেবার/শ্রমিক নিয়ে কারখানাটি চালু করে দিয়েছে। বাকি ৫৩ জন লেবার/শ্রমিক এখন সংসার চালাতে ও রুজি-রুটির জোগাড়ে সবজি বিক্রি করতে বাধ্য হয়েছেন।”

বেশ কয়েকদিন ধরে দুর্গাপুর শিল্পাঞ্চল এলাকায় বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যমে ওই দুষ্টু, দুর্নীতিগ্রস্ত, তোলাবাজ, অত্যাচারী, লোহা চোরের দলটি নিরন্তর আইএনটিটিইউসি’র দ্বারা নবনিযুক্ত তৃণমূল কর্মীদের বিরুদ্ধে কুৎসা রটনা করছেন বলে অভিযোগ। বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যমে নিজেদেরকে খাঁটি তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী বললেও ,বামুনাড়া বাঁশকোপা শিল্প তালুকের শ্রমিকদের অভিযোগ “ওই সব দুষ্টু, দুর্নীতিগ্রস্ত, তোলাবাজ, অত্যাচারী, লোহা চোরের দলটির তৃণমূল কর্মীদের পরিবারের একাধিক সদস্য বামুনাড়া শিল্পতালুকে বিজেপির শীর্ষস্থানে বসে আছেন। গত বিধানসভা নির্বাচনের আগে তারা পাঁচিলের ওপর বসে মজা নিচ্ছিলেন বলে অভিযোগ। যদি কোনভাবে তৃণমূল কংগ্রেস হেরে যেত তাহলে হয়তো এতদিন তারা মাথায় গেরুয়া পট্টি বেঁধে আবার দুর্নীতি রমরমিয়ে চালাতেন বলে সাধারণ খেটে খাওয়া ওই এলাকার মানুষদের অভিযোগ।”

বামুনাড়া বাঁশকোপা শিল্পতালুকের একাধিক শ্রমিক সংগঠনের শ্রমিক এদিন অভিযোগ করে বলেন, “পশ্চিম বর্ধমান জেলার প্রাক্তন এক শ্রমিক সংগঠনের সভাপতি ও প্রাক্তন এক বিধায়কের প্রত্যক্ষ মদতে ওই সব দুষ্টু, দুর্নীতিগ্রস্ত, তোলাবাজ, অত্যাচারী, লোহা চোরের দলটি বিভিন্নভাবে শ্রমিকদের ওপর অত্যাচার ও নিপীড়ন চালিয়েছেন। এখন তাদের ‘বাড়া ভাতে ছাই’ হয়ে দাঁড়িয়েছে নবনিযুক্ত আইএনটিটিইউসি’র দায়িত্বপ্রাপ্ত ওই এলাকার তৃণমূল কর্মী শক্ত হাতে শ্রমিক সংগঠনের হাল ধরতেই। তাই বাধ্য হয়ে আর কোনো রাস্তা না পেয়ে সৎ, দক্ষ, সুসংগঠক ও শ্রমিক দরদী ওই তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীর বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালানোর এক মরিয়া চেষ্টা চালাচ্ছে ওই দুষ্টু, দুর্নীতিগ্রস্ত, তোলাবাজ, অত্যাচারী, লোহা চোরের দলটি।”

বামুনাড়া বাঁশকোপা শিল্প তালুকের একাধিক কারখানার মালিক ও শিল্পপতি জানিয়েছেন, “নবনিযুক্ত আইএনটিটিইউসি’র দায়িত্বপ্রাপ্ত যে ব্যক্তি বাঁশকোপা শিল্প তালুকের শ্রমিকদের দায়িত্বে রয়েছেন তিনি যথেষ্ট ভদ্র ও শিল্প বান্ধব। যে কোনো কারখানায় সমস্যা হলেই তাকে পাওয়া যায় হাতের কাছেই।” বামুনাড়া বাঁশকোপা শিল্প তালুকের সমস্ত শ্রমিকরাও অত্যন্ত উল্লসিত এইরকম একনিষ্ঠ ও সুসংগঠক ব্যক্তিকে তৃণমূল কংগ্রেসের শ্রমিক সংগঠনের ওই এলাকায় দায়িত্ব দেওয়ার জন্য। বামুনাড়া বাঁশকোপা শিল্প তালুকের একাধিক শ্রমিকরা এ দিন আইএনটিটিইউসি’র নবনিযুক্ত তৃণমূল কর্মীর সাথে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে শিল্পের জন্য শিল্প বান্ধব পরিবেশ ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রেখে কাজ করার অঙ্গীকার করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here