কুমারমঙ্গলম পার্কে মারপিট এবং গুলি চালানোর অভিযোগ

0
4588

নিজস্ব সংবাদদাতা, দুর্গাপুরঃ- দুর্গাপুর ইস্পাত নগরীর ভেতরে থাকা কুমারমঙ্গলম পার্কে একটি অনুষ্ঠানের মঞ্চ বাঁধাকে কেন্দ্র করে হুলুস্থূলুস কান্ড ঘটল আজ। কুমারমঙ্গলম পার্কের ভেতরে একটি সংস্থার পক্ষ থেকে হিন্দি ভাষার অপর এক অনুষ্ঠানকে করা নিয়ে মঞ্চে তৈরী করতে গিয়ে ডেকোরেটরের লোকজনদেরকে মারধর করে পার্কের নিরাপত্তারক্ষীরা বলে অভিযোগ। জানা গেছে দুর্গাপুরে এই অনুষ্ঠানটি ২৩ ফেব্রুয়ারি হওয়ার কথা। উপস্থিত থাকার কথা তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতা নেত্রীদের। দুর্গাপুর ইস্পাত কারখানা থেকে লিজ নেওয়া এই পার্কের মালিক দেবাশীষ রায় জানান আজ কিছু লোকজন এসে তাদের একটি রেস্টুরেন্ট ভাঙচুর করে ও গুলি চালায়। যদিও ডিএসপি কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে পাওয়া খবর অনুসারে লিজের মেয়াদ অনেক দিন আগেই শেষ হয়ে গিয়েছে, ব্যাপারটি এখন আদালতে বিচারাধীন। এই প্রথম নয় এর আগেও বহুবার কুমারমঙ্গলম পার্ক কর্তৃপক্ষ বিতর্কে জড়িয়ে পড়েছেন, কখনো উৎসবকে কেন্দ্র করে কখনো-বা অবৈধভাবে মদ বিক্রি , ও স্টাল তৈরি করা কে নিয়ে। কুমারমঙ্গলম পার্ক বেশ কয়েকবছর ধরেই বিতর্কের শীর্ষে। স্থানীয় কাউন্সিলর রাজীব ঘোষ জানান পার্কের ভেতরে একটি মঞ্চ বাঁধার কাজ করতে গিয়েছিল ডেকোরেটর সংস্থার লোকজনেরা মারধর করে ডেকরেটর কর্মীদের। যেহুতু পার্কের লিজ অনেকদিন আগেই শেষ হয়ে গিয়েছে তাই তারা পার্কে লিজ নেওয়া সংস্থার কাছ থেকে অনুমতি নেওয়ার প্রয়োজন মনে করেননি। ডেকোরেটর কর্মীদের কে মারধর করে পার্কে থেকে বার করে দেওয়া হয় বলে তিনি অভিযোগ করেন। তিনি আরো বলেন এই পার্কে রেস্টুরেন্টের ভেতরে প্রতিদিন রাত্রে চলে অসামাজিক কার্যকলাপ। এলাকার মানুষ তাই আজ জড়ো হয়ে তার প্রতিবাদ করেছেন মাত্র। ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ বাহিনী পৌছায় পার্কে। জানা গেছে যে সংস্থা এই পার্কটিকে লিজ নিয়েছিলেন তার মালিক দেবাশীষ রায় নিজেকে বিজেপি সমর্থক বলে পরিচয় দেন। দেবাশীষ বাবু বলেন রেঁস্তোরাতে ভাঙচুর চালিয়েছে প্রতিহিংসা বশত। তবে কাউন্সিলর রাজীব ঘোষ বলেন রেস্তোরার ভাঙচুরের সাথে তাদের কেউ জড়িত নয়। পার্কের কর্মীরা অভিযোগ করেন বেশ কিছু বহিরাগত আজকে পার্কে ঢুকে তাদেরকে মারধর করে এবং গুলি চালায়। ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে তদন্ত শুরু করেছে। দুর্গাপুর ইস্পাত নগরীর সাধারন বাসিন্দারা জানান অবিলম্বে ডিএসপির উচিৎ, প্রশাসন ও আইনের সাহায্য নিয়ে এই পার্ককে নিজেদের দখলে নেওয়া উচিৎ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here