ধূপকাঠি কারখানায় বিধ্বংসী অগ্নিকান্ড, ভস্মীভূত কারখানা

0
795

নিউজ ডেস্ক, এই বাংলায়ঃ ভয়াবহ আগুনে ভস্মীভূত হয়ে গেল পরপর তিনটি ধূপকাঠি কারখানা। ঘটনা উত্তর ২৪ পরগনার মধ্যমগ্রাম পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের তেঁতুলতলার। জানা গেছে, ওই এলাকায় ৯ বিঘা জমির ওপরে রয়েছে পরপর তিনটি ধূপকাঠি তৈরীর কারখানা। শুক্রবার রাতে আচমকায় ওই ধূপকাঠি কারখানার একটিতে আগুন লেগে যায়। কারখানায় অতি দাহ্য বস্তু থাকায় মুহুর্তে আগুন পাশের কারখানাগুলিতে ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে দমকলের একটি ইঞ্জিন আগুন নিয়ন্ত্রণের জন্য গেলেও আগুনের ভয়াবহতায় তা ব্যর্থ হয়। পরে ধাপে ধাপে দমকলের ১০টি ইঞ্জিন নাগাড়ে কাজ করে কয়েক ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। যদিও এলাকাবাসীদের ক্ষোভ প্রথম ধাপে মাত্র একটি ইঞ্জিন আসায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে এত সময় লেগেছে। তবে দমকলকর্মীদের বয়ান অনুযায়ী, ধূপকাঠি তৈরীর মতো অতি দাহ্য বস্তু তৈরীর কারখানা হওয়া সত্ত্বেও কারখানায় কোনও অগ্নিনির্বাপন ব্যবস্থা ছিল না। কোনও সরকারী অগ্নি নির্বাপনবিধি না মেনেই কারখানাগুলি গজিয়ে উঠেছিল, তারওপরে ঘটনাস্থলের আশেপাশে কোনও জলাশয় না থাকায় জলের সমস্যার জেরে আগুন নেভাতে সময় লেগেছে। আগুনে সম্পূর্ণ ভস্মীভূত হয়ে গেছে কারখানাগুলি। তবে কী কারণে এই বিধ্বংসী আগুন, বা কারখানার ভেতরে আগুন লাগার সময় কেউ ছিলেন কিনা সে বিষয়ে কিছু জানা যায়নি। অন্যদিকে শতাধিক বছরের প্রাচীন কৃষ্ণচূড়া গাছ ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কে ভেঙে পড়ায় বিপত্তি। এর জেরে কয়েক ঘণ্টা ধরে অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক। ঘটনা উত্তর ২৪ পরগনা আমডাঙা থানার বিডিও অফিস মোড়ের। বিশাল ওই গাছের ঝাপটায় একটি চায়ের দোকান এবং একটি অটো ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তবে ঘটনায় কেউ হতাহত হয়নি।