বেআইনী নীল বাতি লাগিয়ে পরিবার নিয়ে হাজার কিমি ঘুরছেন বর্ধমানের আধিকারিকঃ তদন্তের নির্দেশ

0
671

মান্তু কর্মকার, বর্ধমানঃ- বেআইনী ভাবে নীল বাতি লাগিয়ে, শ’য়ে শ’য়ে মাইল সরকারি গাড়ীতে পরিবার নিয়ে ঘুরছেন পূর্ত দপ্তরের এক উচ্চ পদস্থ বাস্তুকার। জেলা শাসক কে জানিয়ে ও কোনো লাভ হয় নি, তাই এবার সরাসরি আদালতের দ্বারস্থ হয়ে বিচার চাইলেন ভাড়া করা ওই সরকারি গাড়ীরই ড্রাইভার।
গোটা বিষয়টির গুরুত্বে বুঝে, বুধবার দুপুরে বর্ধমান থানা কে ওই বাস্তুকারের বিরুদ্ধে অভিযোগ নথিভুক্ত করে তদন্ত শুরু করার নির্দেশ দিল বর্ধমানে মুখ্য দায়রা আদালত। একজন উচ্চ পদস্থ আমলার বিরুদ্ধে এমন নির্দেশে রীতিমতো চাঞ্চল্য জেলার সরকারি আমলাদের মধ্যে। ইতিমধ্যেই অনেকে নিজেকে শুধরে নেওয়ার জন্য গাড়ীর লগবুক “ঠিকঠাক” করার ব্যাপারে উঠেপড়ে লেগেছেন।
পূর্ত দপ্তরের বর্ধমান স্থিত ওয়েস্টার্ন সার্কেলের সুপারি টেন্ডিং ইঞ্জিনিয়ার পদে থাকাকালীন সৌমেন পাল নামে এক বাস্তুকারের বিরুদ্ধেই বর্ধমান আদালত থানা কে এফ.আই.আর নতিভুক্ত করতে বলেছে। এ বছরই নভেম্বর মাসে সৌমেন কলকাতার নিড সেক্রেটারিয়েট ভবনে দপ্তরের চীপ ইঞ্জিনিয়ার (মুখ্য বাস্তুকার) পদে বদলি হয়েছেন। বর্ধমান থানা সূত্রে জানা গেছে, সৌমেনের বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন আইনের ৭ নং ধারা ও জাল নথি তৈরী করে প্রতারনা এবং সরকারি সম্পত্তি ব্যাক্তিগত কাজে ব্যবহার করার অভিযোগ নথিভুক্ত করা হবে। সংশ্লিষ্ট গাড়িটির চালক বিশ্বজিৎ দে সৌমেনের বিরুদ্ধে ওই সব অভিযোগ এনেছেন। বিশ্বজিতের দাবি “যখন তখন বর্ধমান থেকে কলকাতার যাদবপুরে তার বাড়ি পৌঁছে দেওয়া ছাড়াও, কলকাতায় বসে হঠাৎই ফোন করে বর্ধমান থেকে গাড়ি নিয়ে তাকে অফিসে আনতে হুকুম করতেন উনি। কলকাতায় এখানে ওখানে তার পরিবার নিয়ে ঘোরাঘুরি তো ছিলই”। সৌমেনের বিরুদ্ধে বিশ্বজিতের আরো বিস্ফোরক অভিযোগ, “উনি গাড়ীর মাথায় নীল বাতি লাগাতে আমাকে বাধ্য করতেন। উনি যে পদে চাকরি করছিলেন, তাতে উনি নীল বাতির গাড়ী পেতে পারেন না। ওনার হুকুম অমান্য করার ক্ষমতা আমার ছিল না। তাই বাধ্য হয়ে নীল বাতি লাগাতাম”।
আদালতের কাছে সরকারি ভাড়া করা গাড়ীর পারিবারিক কাজে ব্যবহারের ভুরি ভুরি নথি জমা করেছেন বিশ্বজিত। তারই একটি তে দেখা যায়, ৯ অগষ্ট, ২০১৯ ও ১৩ অগষ্ট, ২০১৯ – এই পাঁচদিনে সংশ্লিষ্ট গাড়িটি মোট ৮৮০ কিলোমিটার ছুটেছে। তাতে এক দিনেই কলকাতার যাদবপুর থেকে বাঁকুড়ার মেজিয়া তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের আবাসনে, সৌমেনের মেয়ের বাড়ি প্রায় ৩০৫ কিলোমিটার ছুটেছে গাড়ি। গাড়ীর লগবুকের প্রতিলিপি সহ তাপবিদ্যুৎ কেন্দের নিরাপত্তা বিভাগে নথিকৃত গাড়ীর ৪ নম্বর সহ রেজিষ্টার খাতার প্রতিলিপিও জমা দিয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here