ভারত মাতার বীর সন্তানদের চ্যানেল এই বাংলার অশ্রুজলে ভরা শ্রদ্ধাঞ্জলি

0
3604

নিউজ ডেস্কঃ জম্মু-কাশ্মীরের পুলওয়ামার অবন্তিপোরায় ভয়াবহ আত্মঘাতী জঙ্গি হামলার পর কেটে গেছে পুরো একটা দিন। ভয়াবহ বিস্ফোরণে শহীদ হয়েছেন ৪৪ জন ভারতীয় সিআরপিএফ জওয়ান। ঘটনার বীভৎসতা নাড়িয়ে দিয়েছে গোটা দেশ তথা বিশ্ববাসীকে। ইতিমধ্যেই এই তথ্যও সর্বসমক্ষে উঠে এসেছে যে বৃহস্পতিবারের এই হামলায় স্বাধীন ভারতের কাশ্মীরের ইতিহাসে সবচেয়ে ভয়াবহ জঙ্গি হানা। যা ছাপিয়ে গিয়েছে ২০১৫ সালে জম্মু-কাশ্মীরের উরি সেনাছাউনিতে ঘটা জঙ্গি হানাকেও। দেশের বীর সন্তানদের হারানো সবসময় বেদনাদায়ক। ভারতীয় নাগরিক হিসেবে ঘটনার বীভৎসতাকে চাক্ষুস করার পর কোনওভাবেই নিজেদেরকে আটকে রাখা সম্ভব নয়, কিন্তু বাস্তবকে মেনে নিয়েই দেশের প্রত্যেকটি মানুষ আজ শহীদ ভারত মাতার সন্তানদের ও তাঁদের পরিবারের পাশে রয়েছে। এই কাপুরুষোচিত আক্রমণকে কোনওভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। কোনও ভারতীয় নাগরিক কোনও দিনও তা মেনে নেবেনও না। কারণ আত্মঘাতী জঙ্গি হামলায় কোনও পরিবার হারিয়েছে তার সন্তানকে, কেউ হারিয়েছেন স্বামীকে, কোনও সন্তান হয়েছে পিতৃহারা। তাই এহেন নৃশংসতাকে কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। ভূ-স্বর্গে বৃহস্পতিবারের জঙ্গিহানার ঘটনা প্রকাশ হওয়ার পর থেকেই গোটা দেশ গর্জে উঠেছে। জায়গায় জায়গায় পাকিস্তান মদতপুস্ট এই জঙ্গি সংগঠনকে ধ্বংস করে দেওয়ার দাবি জানিয়ে রাস্তায় নেমেছেন দেশবাসী। জঙ্গি হামলার ঘটনার তীব্র নিন্দা করে ভারতীয় সেনাকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার সম্পূর্ণ অধিকার দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। শুক্রবার ঘটনাস্থলে পৌঁছেছেন দেশের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। শহীদ জওয়ানদের কফিন বন্দী দেহ পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় সকলের পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হবে বলেও জানান তিনি। চ্যানেল এই বাংলার পক্ষ থেকে শোকস্তদ্ধ শহীদ জওয়ানদের পরিবারের প্রতি রইল গভীর সমবেদনা জানাই। গোটা দেশ ও সমস্ত দেশবাসী আজ ওই পরিবারগুলির সাথে সমব্যথী এবং তাঁদের পাশে রয়েছে। তাঁদের এই পরম দুঃখের দিনে অশ্রুজলে ভরা চ্যানেল এই বাংলার শ্রদ্ধাঞ্জলি।