ঘুমের মধ্যে বিষাক্ত কালাচের কামড়ঃ প্রান হারালেন গোসাবার তরুণী

0
615

সংবাদদাতা, গোসাবাঃ- ঘুমের মধ্যে সাপের কামড় খাওয়া তরুণীকে ওঝার দ্বারা ঝাড়ফুঁক করেও শেষ পর্যন্ত বাঁচানো গেল না। বরং ওঝার মাতব্বরিতে আজ সকালে মৃত্যু ঘটল দক্ষিন ২৪ পরগনার গোসাবার পাঠানখালি গ্রামের তরুণী শ্যামলী সর্দারের। এই ঘটনাটি সর্প দংশন নিয়ে মানুষের সচেতনতার অভাবটাকেই ফের প্রকট করে তুলল।

গতকাল রাত্রে হঠাৎই একটি বিষধর কালাচ শ্যামলীর বিছানায় উঠে গিয়েছিল। রাতের অন্ধকারে কালাচটি ছোবল মারে শ্যামলীকে। পরক্ষনেই যন্ত্রনায় কাতরে ওঠেন শ্যামলী। প্রথম দিকে বুঝতে না পারলেও, হাতে কামড়ের চিহ্ন দেখে প্রতিবেশীরা বুঝতে পারেন ওটা সাপে কাটার দাগ। তাঁরা শ্যামলীকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন। কিন্তু শ্যামলীর পরিবারের সদস্যরা কথাটি অমান্য করেন। এরপর এক ওঝার কাছে নিয়ে যাওয়া হয় শ্যামলীকে। ওঝা সারারাত ঝাড়ফুঁক করে সাপের বিষ নামানোর চেষ্টা করতে থাকেন। খাওয়ানো হয় নানা রকমের গাছের শিকড়। কিন্তু এতে শ্যামলীর শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে থাকে। এবং সে কয়েকবার বমি করে। এইভাবেই কেটে যায় সারা রাত। অন্যদিকে, পরিস্থিতি বেগতিক দেখে সুযোগ বুঝে ওঝাটি পালিয়ে যায়।

আজ ভোরবেলায় শ্যামলীকে ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। চিকিৎসকেরা হাসপাতালেই তাকে মৃত বলে জানান। এরপরে মৃতদেহটি পাঠানো হয় ময়নাতদন্তের জন্য। পরিবারের সদ্যস্যরা বলেন, “ভেবেছিলাম ওঝার কাছে নিয়ে গেলে সুস্থ হয়ে যাবে আমাদের মেয়ে। কিন্তু বাঁচানোই গেলে না মেয়েকে।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here