ভুল ওষুধের শিকার হলেন কল্যানেশ্বরীর এক ব্যাক্তি

0
327

সন্তোষ মন্ডল, আসানসোলঃ- কল্যানেশ্বরীর অঞ্চলের পরিচিত মুখ শঙ্কর নুনিয়ার(৬০) ভুল ওষুধের শিকার হলেন। পরিবারের সদস্যদের অভিযোগ বৃহস্পতিবার সকালে পেট ব্যাথার জন্য কল্যানেশ্বরী অঞ্চলের প্রদীপ মেডিকেল স্টোর থেকে বমিফোর্ড ওষুধ খাওয়ার ৫ মিনিটের মাথায় মৃত্যু হয় শঙ্কর নুনিয়ার। এই ঘটনার জেরে পরিবারের সদস্যরা রাগে ফেটে পড়েন ভাঙচুর করা হয় প্রদীপ মেডিকেল স্টোরে ও বাড়িতে। অবশেষে কল্যানেশ্বরী ফাঁড়ির ইনচার্জ অমরনাথ দাস ও চৌরাঙ্গী ফাঁড়ির ইনচার্জ অনন্ত কুমার রায় পুলিশের দলবল এসে পরিস্থিতির সামালদেন এবং মৃতদেহটি ময়না তদন্তের জন্য আসানসোল জেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়। এই ঘটনার জেরে পুলিশ আটক করেন প্রদীপ মেডিকেলের মালিক প্রদীপ পন্ডিত ও উমাশঙ্কর পন্ডিতকে। পরিবারের তরফে সালানপুর থানায় লিখিতভাবে অভিযোগ করা হয়।

এই ঘটনা প্রসঙ্গে মৃত শঙ্কর নুনিয়ার পুত্র রাজেশ নুনিয়া বলেন বৃহস্পতিবার সকালে বাবা আমার ভালো ছিলো,সকালে উঠে পুরো বজরঙ্গ বলি মন্দিরের চত্বর টি পরিস্কার করার পর,বাড়িতে এসে হঠাৎ বলেন খুব পেটে ব্যথা শুরু হয় সেই মুহূর্তে আমি সামনের দোকান প্রদীপ মেডিকেল থেকে একটি ওষুধ নিয়ে আসি সেই ওষুধ খাওনোর পর কিছু ক্ষনের মধ্যে পুরো শরীর ঠান্ডা হয়ে পড়ে, পেট ব্যথার ওষুধ না দিয়ে তিনি আমাকে বমিফোর্ড নামে ক্যান্সারের ওষুধ দিয়ে দেয় আর ওই ওষুধ খাওনোর জেরে আমরা বাবা মারা যায়।পরিবারের দাবি সঠিক তদন্তের মাধ্যমে দোষীদের শাস্তি। এই ঘটনার পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে। এই ঘটনার জেরে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here