হাতি ঠেকাতে রাজ্যে এবার মাষ্টার প্ল্যান

0
547

বিশেষ সংবাদদাতা, বাঁকুড়াঃ- ক্রমাগত বেড়ে চলা হাতি-মানুষ দন্ধ মেটাতে একটি বড়ো মাপের মাষ্টার প্ল্যান হাতে নিতে চলেছে রাজ্য সরকার। শুক্রবার ঝাড়্গ্রামে বন দপ্তরের একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে যাওয়ার পথে এ কথা জানান রাজ্যের বনমন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়।
জানুয়ারি মাস জুড়েই বাঁকুড়া, পুরুলিয়া ও ঝাড়্গ্রাম জেলার বিভিন্ন অঞ্চলে দলমা থেকে আসা হাতির পাল অতীষ্ট করে তুলেছে জন জীবন। নাকাল বন দপ্তরও। শুধু জানুয়ারি মাসেই বাঁকুড়া জেলাতে হাতির হানায় চার জনের মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে- বিষ্ণুপুর, গঙ্গাঁজলঘাঁটি আর রানিবাঁধ ব্লকে। রানিবাঁধের বাধখিলা গ্রামে বন দপ্তরের হাতি খেদানো অভিযান চলাকালীন এক যুবতী ও এক বৃদ্ধের মৃত্যুর ঘটনার পর নতুন করে হাতি-মানুষ দন্দের বিষয়টি মাথা চাড়া দেয়।
“দক্ষিনবঙ্গেঁ হাতি-মানুষ দন্দ আর উত্তরবঙ্গেঁর জেলা গুলিতে চিতাবাঘ, বাইসনের সাথে মানুষের সংঘাত যে ভাবে বেড়ে চলেছে, তাতে আমরা মাষ্টার প্ল্যান নিয়ে জলদি কাজ শুরু করে দেব। পাশাপাশি, যে সব রাজ্য থেকে হাতি এসে আমাদের জেলা গুলিতে তান্ডব চালাচ্ছে সেখানকার হাতি খেদানো লোকেদের এনে আমরা আমাদের বন কর্মীদের বিশেষ প্রশিক্ষনের ব্যবস্থা করব”, বললেন বনমন্ত্রী রাজীব বন্দোপাধ্যায়।
এ দিকে বাঁকুড়ার সারেঙ্গাঁ, রানিবাঁধে ২২ জানুয়ারি থেকে তান্ডব চালানো হাতির পালটি পাঁচ ভাগে বিভক্ত হয়ে গেছে। তাদের ঝাড়খন্ডে ফেরৎ পাঠাতে নাকাল অবস্থা বন বিভাগের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here