জলঙ্গিতে বাংলাদেশের বিজিবি বাহিনীর গুলিতে বিএসএফ জওয়ানের মৃত্যুর জেরে দুই দেশের মধ্যে উচ্চ স্তরের বৈঠক

0
1139

সংবাদদাতা, মুর্শিদাবাদ :-

ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের জলঙ্গি থানার কাকমারি চর সীমান্তে তিন মৎস্যজীবী কে বাংলাদেশর বিজিবি বাহিনীর হাতে আটক পরা কে কেন্দ্র করে বৃহস্পতিবার ১ বিএসফ এর হেড কোনস্টসেবল জওয়ান বিজয়ভান সিংহ কে মাথায় গুলি করে খুন করে।

পরে ওই আটক মৎসজিবিদের মধ্যে দুজনকে ছেড়ে দিলেও একজনকে আটকে রাখেন। তাদের সঠিক প্রমাণপত্র নিয়ে ইন্ডিয়ান বর্ডার আধিকারিককে সঙ্গে নিয়ে যাবার কথা বলেন ঠিক সেই মতই বিএসএফ আধিকারিক জানান ভারতীয় মৎসজীবীকে উদ্ধার করার জন্য সঙ্গে যায় ৬ জন জওয়ান। যাওয়ার পরে দুপক্ষের মধ্যে ফ্ল্যাগ মিটিং চলাকালীন হঠাৎ করে বাংলাদেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর তরফ থেকে ফায়ারিং শুরু হয় ফিরে আসার চেষ্টা করা হয, কিন্তু তাদের ছোঁড়া গুলিতে ওই বিজয় ভান সিং নামের হ্যাড কনস্টেবলের মাথায় এসে লেগে যায় গুলি আর সেখানেই মৃত হয়, আর এক জোয়ানের হতে লাগে গুলি তাকে উদ্ধার করে মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

তারা পরিস্থিতি খারাপ বুঝে চলে আসেন। ঘটনার জেরে ফের শুক্রবার আপদকালীন পরিস্থিতিতে ভারত ও বাংলাদেশ দুই দেশের মধ্যে ফ্ল্যাগ মিটিং নতুন করে শুরু হয়েছে। বাংলাদেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর কাছে আটক থাকা প্রণব মন্ডল কে ফিরিয়ে আনার জন্যই এই মিটিং বলে জানা গিয়েছে। তবে কবে কখন কিভাবে প্রণব মন্ডল কে ছাড়া হবে সেটা সন্ধ্যার শেষ পাওয়া খবরে পরিষ্কার হয়নি। এদিকে ফেরত আসা ২ মৎসজীবীকে বিএসফ এর উচ্চ আধিকারিক গণ তাদের কাছ থেকে বিস্তারিত জানার তাদের ১১৭নং ব্যাটালিয়নের ক্যাম্পে নিয়ে আসে। যদিও এখনও বিএসএফ কর্তৃক কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায় নি। এখন দেখার দুই দেশের সম্পর্ক কেমন অবস্থায় দাড়ায়, যদিও বিগত দিনের সম্পর্ক খুবই ভালো ছিল। আশা করা যায় আগের মতোই সম্পর্ক থাকবে, আর আটক প্রণব মন্ডল কে ভালো ভাবেই ছেড়ে দিবে বলে আশা বাদী সকলে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here