মায়ের কোন জাত হয়না তা আবারো প্রমান করলো বাঁকুড়া

0
659

সংবাদদাতা, বাঁকুড়াঃ– ‘মা’ মা-ই। বহুল প্রচলিত এই শব্দ বন্ধের চাক্ষুস প্রমাণ মিললো বাঁকুড়ার তালডাংরার হাড়মাসড়া গ্রাম পঞ্চায়েতের কেশাতড়া গ্রামে। একটি এক মাসের মাতৃহারা ছাগল ছানা গোরুর দুধ খেয়েই বড় হচ্ছে। আর পরম মমতায় সেই মা হারা ছাগল ছানা দুগ্ধ পান করাচ্ছেন সদ্য মা হওয়া ঐ গোরু। আর প্রায় অতি বিরল এই ছবি ধরা পড়লো আমাদের ক্যামেরায়। স্থানীয় সূত্রে খবর, কেশাতড়া গ্রামের সিংহমহাপাত্র পরিবারের গৃহবধূ স্মৃতিরেখা সিংহমহাপাত্র স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মাধ্যমে লোন নিয়ে কয়েকটি ছাগল কেনেন। কিন্তু একটি মা ছাগল বাচ্ছা প্রসবের পরই মারা যায়। ঐ অবস্থায় দুগ্ধপোষ্য ছাগল ছানাটিকে  নিয়ে কি করবেন তিনি যখন ভেবে পাচ্ছেননা, তখন একদিন তার নজরে আসে বাড়ির সদ্যপ্রসবা গোরুটি শুয়ে আছে। আর তার দুধ খাচ্ছে ছাগল ছানাটি। এই ঘটনার পর বাড়ির লোকেরা ঐ গোরুর কাছে ছাগল ছানাটিকে নিয়ে গেলে নিজে থেকেই সে ঐ গোরুর দুধ খেতে শুরু করে। তখন থেকে সেভাবেই চলছে বলে তারা জানান। গৃহবধূ স্মৃতিরেখা সিংহ মহাপাত্র বলেন, স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মাধ্যমে লোন নিয়ে ছাগল চাষ শুরু করেছিলাম। কিন্তু বাচ্চা প্রসবের পরই একটি ছাগল মারা যায়। প্রায় একমাস আগের এই ঘটনার পর তখন থেকেই গোরুর দুধ খেয়েই বড় হচ্ছে ঐ ছাগল ছানা বলে তিনি জানান। একই কথা বলেন, ঐ বাড়ির সদস্য তরুণ সিংহমহাপাত্রও। তিনি বলেন, ছাগল ছানাটির মা মারা যাওয়ার পর অতি সহজে সমস্যা সমাধান করে দিয়েছে বাড়ির গোরু। তার দুধ খেয়েই বেঁচে আছে ছাগল ছানাটি

প্রতিবেশী কাঞ্চন সৎপতি বলেন, প্রথম দিন থেকেই এই ঘটনা আমরা দেখছি। মা মারা যাওয়ার পর গোরুর দুধ খেয়েই বড় হচ্ছে ঐ ছাগল ছানা।

যুক্তি তর্ক দিয়ে হয়তো সব কিছুর বিচার হয়না। মাতৃস্নেহে যেভাবে পরম স্নেহে নিজের দুধ খাইয়ে ছাগল ছানা বড় করছে একটি গোরু তার দৃষ্টান্ত হয়তো খুবই বিরল বলেই অনেকে জানিয়েছেন।

   বিশিষ্ট পরিবেশবিদ্ ও অধ্যাপক নীললোহিত মুখার্জ্জী এবিষয়ে বলেন, বিষয়টি যথেষ্ট চমকপ্রদ ও এখান থেকে আমাদের অনেক কিছু শেখারও আছে। একমাত্র মানুষই অন্য স্তন্যপায়ীর দুধ পান করতে অভ্যস্ত। কিন্তু দু’টি ভিন্ন প্রজাতির চতুস্পদী স্তন্যপায়ি প্রাণী, যেমন এখানে ছাগল গোরুর দুধ খাচ্ছে এমনটি দেখা যায়নি। এই বিষয়টি দেখে তিনি যথেষ্ট অবাক বলেই জানান। একই সঙ্গে তিনি বলেন, হয়তো অন্য কোন দেশে এই ধরণের দু’একটি বিক্ষিপ্ত ঘটনা থাকলেও থাকতে পারে। এক্ষেত্রে যেহেতু ছাগল ছানাটির মা মারা গেছে তাই খিদে মেটাবার জন্য হয়তো গন্ধ শুকে বা তার অভ্যাস মতো আর এক স্তন্যপায়ী প্রাণী যে তাকে দুধ পান করাতে সক্ষম এমন একজনকে খুঁজে নিয়েছে। আবার অন্যদিকে মাতৃস্নেহে গোরুটি ঐ ছাগল ছানাটিকে দুধ খাইয়েছে। খিদে ও মাতৃস্নেহ এই দুই জিনিস আমাদের মধ্যে সমস্ত ভেদাভেদ দূর করে দেয়। এক্ষেত্রেও সেই ঘটনাই প্রমাণিত বলে তিনি জানিয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here